kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

বার্সেলোনার নতুন যুগের শুরু

১৯ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বার্সেলোনার নতুন যুগের শুরু

‘কিছুই শেষ হয়ে যায়নি, এটা নতুন শুরু। কোপা হয়তো খুব বড় টুর্নামেন্ট নয়, তবে এটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ জয়’—কোপা দেল রে ফাইনালে অ্যাথলেতিক বিলবাওকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দেওয়ার পর বলছিলেন বার্সেলোনার জেরার্দ পিকে। শিরোপা উৎসবে খেলোয়াড়রা যে টি-শার্ট পরে এসেছিলেন সেখানেও লেখা, ‘নতুন যুগের প্রথম।’

তারুণ্যনির্ভর সেই যুগের মধ্যমণি হয়ে কি লিওনেল মেসি থাকবেন, নাকি যোগ দেবেন নতুন ঠিকানায়? ভবিষ্যৎ ধোঁয়াচ্ছন্ন হলেও নতুন শুরু মেসিরও। ২০১৮ সালে দলের নেতৃত্ব পাওয়ার পর এটাই প্রথম শিরোপা এই আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির। জোড়া গোল করে স্মরণীয়ও করেছেন উপলক্ষটা। অধিনায়ক হয়ে প্রথমবার ট্রফি উঁচিয়ে তাঁর উচ্ছ্বাস, ‘এই ক্লাবের অধিনায়ক হিসেবে এটা বিশেষ কিছু। ট্রফি উঁচিয়ে ধরতে পারাটা অন্য রকম অনুভূতির। গ্যালারিতে দর্শক থাকলে আরো মধুর হতো ব্যাপারটা।’ অধিনায়ক হিসেবে প্রথম হলেও সব মিলিয়ে বার্সার হয়ে এটা মেসির ৩৫তম শিরোপা, এর সাতটি কোপা দেল রে। ফাইনালে সবচেয়ে বেশি ৯ গোলও তাঁর।

৬০ থেকে ৭২—এই ১২ মিনিটের ঝড়েই এলোমেলো বিলবাও। ৬০ মিনিটে ডি ইয়ংয়ের দারুণ ক্রসে ছয় গজ দূর থেকে গোলের শুরুটা করেন আন্তোয়ান গ্রিয়েজমান। তিন মিনিট পর ইয়োর্দি আলবার ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ডি ইয়ং। ৬৮ মিনিটে সতীর্থের সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে ডি বক্সে ঢুকে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে অসাধারণ গোল মেসির। ৭২ মিনিটে আলবার পাস ডি বক্সে পেয়ে নিচু শটে জোড়া গোল বার্সা অধিনায়কের। তাতে দুই সপ্তাহে দুটি কোপা দেল রে’র ফাইনাল হারল বিলবাও। আর বার্সেলোনা জিতল ৩১তম কোপা দেল রে। ২০১৮-১৯ মৌসুমে লা লিগার পর এটাই প্রথম শিরোপা কাতালানদের। মেসি জিততে চান লা লিগাও, ‘এল ক্লাসিকোয় দুর্ভাগ্যজনকভাবে ভালো করতে পারিনি। তবে আমরা আরো ঐক্যবদ্ধ হয়ে ফিরেছি। শিরোপার লড়াইয়ে আছি ভালোভাবেই।’ মার্কা