kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

লকডাউনে আটকে আবাহনী

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : লকডাউনে বিপাকে পড়া আবাহনীর ম্যাচটি কোথায় হবে? এএফসি এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। আজ বেঙ্গালুরু-নেপাল আর্মির ম্যাচের পরই হয়তো সিদ্ধান্ত হয়ে যাবে। পরের তিনটি ম্যাচ হতে পারে এক ভেন্যুতেই।

আবাহনী-ঈগলসের ম্যাচটি প্রথমে হওয়ার কথা ছিল ঢাকায়, ১৪ এপ্রিল। লকডাউনের কারণে সেটা বাতিল করে ২১ এপ্রিল নেপালে আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয় এএফসি। কিন্তু বাংলাদেশ সরকার আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ করে দেওয়ায় আবাহনী যেতে পারছে না বলে নেপালেও আর হতে পারছে না ম্যাচটি। বিকল্প হিসেবে আবাহনী প্রস্তাব দিয়েছে এক ভেন্যুতেই বাকি তিন ম্যাচ আয়োজনের। আকাশি-নীলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাস রূপু বলেছেন, ‘কালকের (আজ) ম্যাচটি হয়ে গেলে তিন দলের খেলা হবে প্রিলিমিনারি রাউন্ডে। এদেশ-ওদেশে গিয়ে খেলতে গেলে অনেক সময় লাগবে। তা ছাড়া বিভিন্ন দেশে করোনা সংক্রমণও বাড়ছে। তাই এএফসিকে বলেছি, তিন দলের খেলা এক ভেন্যুতে করলেই ভালো হয়। মালদ্বীপেও ভেন্যু হতে পারে, সেখানে মূল পর্বের খেলার আগে এই ম্যাচগুলো হয়ে গেলে বিজয়ী দল সেখানে থেকে যাবে।’

লকডাউনে বিপাকে পড়া আবাহনীর ম্যাচটি কোথায় হবে? এএফসি এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। আজ বেঙ্গালুরু-নেপাল আর্মির ম্যাচের পরই হয়তো সিদ্ধান্ত হয়ে যাবে। পরের তিনটি ম্যাচ হতে পারে এক ভেন্যুতেই।

আজ ভারতে হচ্ছে বেঙ্গালুর এফসি ও নেপাল আর্মির ম্যাচ। বিজয়ী দলের মুখোমুখি হবে আবাহনী-ঈগলসের ম্যাচের জয়ী দল। করোনাকালে ম্যাচ দুটি দুই ভেন্যুতে হলে ঝক্কি বেশি, সময় বেশি এবং অনিশ্চয়তাও বেশি। তাই এক ভেন্যুতে আয়োজনের পরামর্শ দিয়েছে আবাহনী। তারা মনে করছে আজকের ম্যাচের পর এএফসির সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হবে। সে ক্ষেত্রে মালদ্বীপও হতে পারে ভেন্যু। কারণ বিজয়ী দল খেলবে মালদ্বীপে ‘ডি’ গ্রুপে। ওখানে ১৪ মে থেকে গ্রুপের খেলা শুরু হবে। গ্রুপে এখন আছে তিন দল—বসুন্ধরা কিংস, মাজিয়া স্পোর্ট ও কলকাতা মোহনবাগান। প্রিলিমিনারি রাউন্ড উতরে যাওয়া দলটিই হবে চতুর্থ দল।



সাতদিনের সেরা