kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

আবার করোনার চাপ ক্রিকেটসূচিতে

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আবার করোনার চাপ ক্রিকেটসূচিতে

ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন আইসোলেশনে আছেন। দুই রাউন্ড শেষে এবারের বঙ্গবন্ধু জাতীয় লিগ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দেখে। আর একবার তারিখ পিছিয়ে শেষমেশ এ মাসের বাংলাদেশ সফর থেকে পিছিয়ে গেছে পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। তাতে ক্রিকেট ক্যালেন্ডার আরেকবার বাধাগ্রস্ত হয়েছে, যা পুনর্নির্ধারণ করতে হিমশিমই খাবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তবে আশার কথা, পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামীকালই শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে দেশ ছাড়ছে বাংলাদেশের টেস্ট দল।

করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যুহার প্রতিদিনই নতুন রেকর্ড গড়ছে বাংলাদেশে। এর পরিপ্রেক্ষিতে এ মাসের শুরুতে সরকারের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি ঘোষিত হওয়ায় পূর্বনির্ধারিত সূচি বদলে ১৭ এপ্রিল ঢাকায় আসার তারিখ নির্ধারণ করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। কিন্তু আরেকটি লকডাউনের সরকারি প্রস্তাবনা শুনে গতকালই যুব দলকে এ মাসে পাঠানোর চিন্তা থেকে পিছিয়ে গেছে পিসিবি। তবে সফর বাতিল হয়নি বলেই জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী, ‘সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমরা পিসিবির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। যেকোনো একটা সুবিধাজনক সময়ে সিরিজটি করার পরিকল্পনা রয়েছে, সেভাবেই কথাবার্তা হচ্ছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বাংলাদেশের সার্বিক পরিস্থিতি যখন একটি আন্তর্জাতিক দলকে আতিথ্য দেওয়ার মতো অনুকূল মনে হবে, তখনই সিরিজটি করে ফেলব।’

সে রকম পরিস্থিতি কখন তৈরি হবে, সেটি সবারই অজানা। তাই প্রশ্ন উঠছে মধ্য মে’তে শ্রীলঙ্কা দলের সম্ভাব্য তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ আয়োজন নিয়েও। বিসিবির প্রধান নির্বাহী অবশ্য এখন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণেই বেশি মনোযোগী, ‘তিনটি ওয়ানডে খেলতে শ্রীলঙ্কার আসার কথা রয়েছে। করোনা পরিস্থিতি হুমকি কি না, সেটি বিবেচনায় রেখেই প্রগ্রাম করছি। এর পরও যদি কোনো অসুবিধা হয়, আমরা অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেব।’

কিন্তু এরই মধ্যে থমকে গেছে জাতীয় লিগ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে ওয়ানডে সিরিজ আয়োজন আর জুনের শেষ ভাগে জিম্বাবুয়ে সফরের মাঝের উইন্ডোতে গত বছরের অসমাপ্ত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ আয়োজনের পরিকল্পনা অনেক দূর এগিয়ে ফেলেছিল বিসিবি। কিন্তু জাতীয় লিগ আর প্রিমিয়ার লিগের জট কি একটি উইন্ডোতে খুলে ফেলা সম্ভব? নিজামউদ্দিনকে বাধ্য হয়েই করোনা পরিস্থিতির ওপর ছেড়ে দিতে হচ্ছে সব কিছু, ‘জাতীয় লিগের বিষয়টা আপনারা জানেন যে দুই রাউন্ড শেষ করে তৃতীয় রাউন্ডের আগে একটা বিরতি নিয়েছি। যদি সব কিছু... পরিবেশ-পরিস্থিতি অনুকূলে হয়, তাহলে আবার এটা শুরু করব।’ জাতীয় তারকাদের এ লিগে খেলার বাধ্যবাধকতা নেই। তাতে সহসাই পরিস্থিতির উন্নতি হলে জাতীয় আর ঢাকা লিগের ঠোকাঠুকি হওয়ার কথা নয়। এই সংকটের মাঝেও প্রধান নির্বাহীর দেওয়া সুখবর, ‘১২ তারিখে (আগামীকাল) বাংলাদেশ দল শ্রীলঙ্কায় দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে।’