kalerkantho

বুধবার । ১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ এপ্রিল ২০২১। ১ রমজান ১৪৪২

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত

৭ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত

জয়টা প্রত্যাশিত ছিল। তাই বলে তিন দিনেই জেতার কথা হয়তো ভাবেননি বিরাট কোহলিও। কিন্তু গতকাল স্পিনে চা বিরতির পর ১৩৫ রানে গুটিয়ে ইনিংস ও ২৫ রানে হেরেছে জো রুটের দল। দাপটে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে লর্ডসে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করে ফেলেছে ভারত। পাঁচটি করে উইকেট অক্ষর প্যাটেল ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনের।

আহমেদাবাদে দ্বিতীয় ইনিংসে স্পিন সামলানোর কৌশল এবং ধৈর্য—কোনোটাই ছিল না ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের। লাঞ্চের পর টানা দুই বলে অশ্বিন ফেরান জ্যাক ক্রাউলি ও জনি বেয়ারস্টোকে। অক্ষর প্যাটেলের বলে করা ডম সিবলের সুইপ শর্ট লেগে শুভমান গিলের প্যাডে লেগে আসে উইকেটরক্ষক ঋষভ পান্টের হাতে। একই বোলারকে প্যাডেল সুইপ করতে গিয়ে ২ রানে বেন স্টোকস তালুবন্দি ব্যাকওয়ার্ড শর্ট লেগে থাকা বিরাট কোহলির। ১৫ করা ওলি পোপ ডাউন দ্য উইকেটে অক্ষরকে উড়িয়ে মারতে এসে হন স্টাম্পিং। অধিনায়ক জো রুট আরো একবার অশ্বিনের বলের লেন্থ মিস করে ফেরেন এলবিডাব্লিউ হয়ে। দলের দাপুটে পারফরম্যান্সে খুশি অধিনায়ক কোহলি, ‘প্রথম টেস্ট হারের পর চেন্নাইয়ে ঘুরে দাঁড়ানোটা আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে সবার। অশ্বিন অনেক দিন ধরেই টেস্টে আমাদের সেরা বোলার। ওর সঙ্গে অক্ষর, সুন্দর, পান্টের মতো তরুণরা নতুন মাত্রা যোগ করেছে দলে।’

এই সিরিজে অভিষিক্ত অক্ষর প্যাটেল তিন টেস্টে নিয়েছেন ইনিংসে চারবার পাঁচ বা এর বেশি উইকেট। সব মিলিয়ে তাঁর শিকার ২৭ উইকেট। অভিষেক সিরিজে ভারতীয় বোলারদের মধ্যে এটাই যৌথ সর্বোচ্চ উইকেট নেওয়ার কীর্তি। ১৯৭৯ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৬ টেস্টে ২৭ উইকেট ছিল দিলিপ দোশীর। তবে ৩২ উইকেট আর একটি সেঞ্চুরিসহ ১৮৯ রান করে সিরিজ সেরার পুরস্কার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের। তিনিও প্রশংসায় ভাসালেন অক্ষরকে, ‘জাদেজার জায়গায় এসেছিল অক্ষর। অভিষেক সিরিজটা স্মরণীয় করে রাখল ও। আমরা এখন লর্ডসের ফাইনালে।’ ক্রিকইনফো

মন্তব্য