kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

আতঙ্ক থেকেও দূরেই আছেন মুশফিকরা

৬ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আতঙ্ক থেকেও দূরেই আছেন মুশফিকরা

সেই মসজিদের সামনে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মসজিদের সামনে তোলা সেলফি পোস্ট করে মুশফিকুর রহিম লিখেছেন, ‘এই সেই মসজিদ এবং আজকেও শুক্রবার।’

দুই বছর আগের এক শুক্রবারে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যাওয়ার বিভীষিকাময় সেই দুপুরটির কথা ভেবে নিশ্চিতভাবেই আঁতকেও উঠেছেন মুশফিক। ২০১৯ সালের ১৫ মার্চ ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে যাচ্ছিলেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু মুশফিকরা সেখানে পৌঁছানোর আগেই এক শ্বেতাঙ্গ বন্দুকধারীর নির্বিচার গুলিতে রক্তে ভেসে যায় সেই প্রার্থনালয়। ওই ঘটনায় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টটি না খেলেই তাই দেশে ফিরে আসে বাংলাদেশ দল।

সেই ক্রাইস্টচার্চেই এবার আরেকটি শুক্রবারও খুব ভালো বার্তা নিয়ে আসেনি। নিয়ম মেনে বায়ো বাবল বা জৈব সুরক্ষা বলয়ে থেকেই কয়েক গ্রুপে ভাগ হয়ে ক্রিকেটাররা গতকালও লিংকন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে অনুশীলনে গিয়েছেন। এর মধ্যেই দুটি খবর কিছুটা হলেও তাঁদের উদ্বেগ না বাড়িয়ে পারে না। সেই সন্ত্রাসী হামলার দুই বছর পূর্তি উপলক্ষে যে ২৭ বছর বয়সী আরেক তরুণ ১৫ মার্চেই ক্রাইস্টচার্চে হামলার হুমকি দিয়ে একাধিক পোস্ট দিয়েছেন অনলাইনে, যাতে গাড়ি বোমা হামলার হুমকিও আছে। পুলিশ যদিও তাঁকে গ্রেপ্তার করতে সময় নেয়নি, আদালতেও হাজির করার কথা দ্রুতই। কিন্তু একই শহরে থাকা বাংলাদেশ শিবিরে এমন হুমকির খবর অস্বস্তি ছড়িয়ে থাকলেও তা বিচিত্র নয়। সেই সঙ্গে শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে তাঁদের ঘুমও ভেঙেছে ৭.৩ মাত্রার ভূমিকম্পে নিউজিল্যান্ডের নর্থ আইল্যান্ড কেঁপে ওঠার খবরে। সেই সঙ্গে ছিল সুনামি সতর্কতাও। যদিও বাংলাদেশ দল আছে সাউথ আইল্যান্ডে।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা সন্ত্রাসী হামলার হুমকি, কোনোটিই অবশ্য দলের কাউকে বিচলিত করতে পারেনি বলে জানিয়েছেন দলনেতা ও বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুস, ‘ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল থেকে আমরা অনেক দূরেই রয়েছি। তা ছাড়া স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও যোগাযোগ রেখেছি আমরা। আমাদের নিশ্চিত করা হয়েছে যে দেশের এই অংশে আশঙ্কার কিছু নেই।’ সন্ত্রাসী হামলার খবরও ভীতিকর হয়ে ওঠেনি বলে জানালেন জালাল, ‘খবরটি দেখেছি তবে আতঙ্কের কিছু নেই। আমরা সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছি এবং আমাদের নিরাপত্তা থেকে শুরু করে সব কিছুরই খুব ভালো দেখভাল করছেন তাঁরা।’

মন্তব্য