kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

রোমানের স্কোর নিম্নগামী

৩ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত এসএ গেমসের পর টানা তিনটি ঘরোয়া আসরে স্কোর কমেছে রোমান সানার। অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জন করা এই আর্চার এসএ গেমসে ক্যারিয়ারসেরা ৬৮৬ স্কোর করেছিলেন। সেখানে কাল জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে তিনি মেরেছেন মাত্র ৬৪৪।

এসএ গেমসের পরপরই জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে ৬৫৭ মেরেও তিনি কোয়ালিফিকেশন রাউন্ডে প্রথম হয়েছিলেন। করোনার পর বিজয় দিবস আর্চারিতে মারেন ৬৫৪। কাল স্কোর নেমে গেল ৬৪৪-এ। কোয়ালিফিকেশন রাউন্ডে এই স্কোর দিয়ে স্বাভাবিকভাবেই সেরা তিন বা পাঁচেও থাকতে পারেননি তিনি। ৬৫৭ মেরে প্রথম হয়েছেন রামকৃষ্ণ সাহা। দ্বিতীয় হওয়া সাকিব মোল্লার স্কোর ৬৫৪। এরপর তৃতীয় তামিমুল ইসলাম (৬৫৩), চতুর্থ আব্দুর রহমান আলিফ (৬৪৭), পঞ্চম সাগর ইসলাম (৬৪৬), রোমান হয়েছেন ষষ্ঠ। আজ নকআউট রাউন্ডে এই স্কোর ভুলে কিভাবে তিনি ঘুরে দাঁড়াতে পারেন সেটিই দেখার। কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ স্বাভাবিকভাবেই খুশি নন তাঁর সেরা শিষ্যের এই পারফরম্যান্সে। তবে কিছু কারণও দেখছেন, ‘ওর কাঁধে হালকা চোট আছে। যে কারণে ধনুকের ওজনও কমাতে হয়েছে। সেটা হয়তো কিছুটা প্রভাব রেখেছে। তবে হ্যাঁ, এমন স্কোর মোটেও প্রত্যাশিত নয় ওর কাছে। আর নকআউট রাউন্ডে কেমন করবে, তা নিয়ে তো এখনই কিছু বলা সম্ভব না। ওখানে একবার খারাপ করলেই তো সেটা পুষিয়ে নেওয়া যাবে না।’

কক্সবাজারে বাতাসের প্রতিবন্ধকতার মাঝে আর্চাররা কেমন করেন এটা দেখার বিষয় ছিল। সাগরপারে হলেও শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের ভেতরে বাতাসের তেমন দাপট নেই। তবে সারাক্ষণই বাতাসের প্রবাহটা থাকছে, সেটাও মানিয়ে নিতে হচ্ছে আর্চারদের। রোমান সানা অবশ্য ইমদাদুল হক মিলন ও সাকিব মোল্লার সঙ্গে দলগত (আনসার) ইভেন্টে প্রথম হয়েছেন। কোয়ালিফিকেশনে মেয়েদের রিকার্ভে মেহনাজ আক্তার প্রথম ও ইতি খাতুন হয়েছেন দ্বিতীয়। এ ছাড়া ছেলেদের কম্পাউন্ডে প্রথম অসীম কুমার দাস ও মেয়েদের মধ্যে প্রথম হয়েছেন রোকসানা আক্তার।

মন্তব্য