kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

জয়ে ফিরেছে শেখ জামাল

আধিপত্যের সঙ্গে গোলের যোগে শেখ জামাল ৩-১ গোলে হারিয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে। টানা চার ম্যাচ পর ড্রয়ের পর এই জয়ে তারা ১০ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। পয়েন্ট সমান হলেও গোল পার্থক্যে আবাহনীকে টপকে গেছে শেখ জামাল।

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জয়ে ফিরেছে শেখ জামাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আধিপত্যের সঙ্গে গোলের যোগে শেখ জামাল ৩-১ গোলে হারিয়েছে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে। টানা চার ম্যাচ পর  ড্রয়ের পর এই জয়ে তারা ১০ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। পয়েন্ট সমান হলেও গোল পার্থক্যে আবাহনী লিমিটেডকে টপকে গেছে শেখ জামাল। আর ১১ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে বসুন্ধরা কিংস।

শুরু থেকে আক্রমণের ঢেউ বইয়ে দিয়ে শেখ জামাল এগিয়ে যেতে পারত দশম মিনিটে। ওতাবেকের কর্নার কিকে গাম্বিয়ান সুলাইমান সিলার পাসে সলোমন কিং হেড করেন। তবে ফিরিয়ে দিয়েছেন গোলরক্ষক তিতুমীর চৌধুরী। ব্রাদার্স ইউনিয়নের জোসেফ নূরের শট যায় ক্রসবার উড়িয়ে, এটাই ছিল তাদের উল্লেখ করার মতো গোলের সুযোগ। ৩৪ মিনিটে সিলার দারুণ গোলে এগিয়ে যায় শেখ জামাল। ডান দিক থেকে মনির হোসেনের ক্রসে এই গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ড লক্ষ্যভেদ করে এগিয়ে নেন দলকে। মিনিট তিনেক বাদে তিনি দ্বিতীয় গোল পেতে পারতেন, কিন্তু তাঁর শট ফিরিয়ে দিয়েছেন গোলরক্ষক তিতুমীর। তবে ৪৩ মিনিটে পোস্ট ছেড়ে সামনে এগিয়ে এসে তিনিই আরেকটি গোল খাওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন। ব্রাদার্স গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে ওমার জোবে শট নিলেও বল পোস্টে লেগে ফিরে আসে, কিন্তু ৫৯ মিনিটে দুই গাম্বিয়ান ফরোয়ার্ডের দুর্দান্ত কম্বিনেশনে শেখ জামাল এগিয়ে যায় ২-০ গোলে। কিংসের থ্রো বলে চমৎকার ফিনিশ করেন ওমার জোবে। সুবাদে ১২ গোল নিয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় শীর্ষে আছেন বসুন্ধরা কিংসের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রোবিনহো। লিগের শুরু থেকে এই দুই ফরোয়ার্ডের মধ্যে চলছে গোলের লড়াই। তবে ওমরের আধিপত্য গোলে ধরা পড়লেও রোবিনহো গোলের সঙ্গে পুরো দলের জ্বালানিও। কিংসের খেলা তৈরি থেকে শুরু করে গোল করায় তাঁর জুড়ি নেই।

ব্রাদার্স ইউনিয়ন কোণঠাসা করে রাখা শেখ জামাল ব্যবধান আরো বড় করতে পারত, কিন্তু ৭২ মিনিটে নুরুল আবসারের জোরালো শট ফিরিয়ে দেয় পোস্ট। এর মিনিট তিনেক বাদেই ওতাবেক স্কোরলাইন ৩-০ করেন দুর্দান্ত এক ফ্রি-কিক গোলে। ৮১ মিনিটে ব্রাদার্স ইউনিয়ন পায় সান্ত্বনার গোল। কর্নার কিকে হেড করে ফয়সাল মাহমুদ ব্যবধান কমান। তবে ইনজুরি টাইমে চতুর্থ গোলের খুব কাছাকাছি গিয়েও সলোমন কিং পারেননি, তাঁর দুর্বল শট পৌঁছে যায় তিতুমীর চৌধুরীর গ্রিপে।

ওদিকে মুন্সীগঞ্জের বীরশ্রেষ্ঠ ফ্লাইট লে. মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ পুলিশ ২-১ গোলে হারিয়েছে আরামবাগকে। টানা আট হারের পর পয়েন্টের খাতা খোলা দলটি আবার হেরেছে। এর মধ্যে এই দলটির বিপক্ষে চলছে ‘ম্যাচ পাতানোর’ তদন্ত। চরম দুর্ভাগ্যের মধ্যে পড়া দলটির বিপক্ষে পুলিশ প্রথমার্ধেই দুই গোলের লিড নেয়। ১৪ মিনিটে জমির উদ্দিন দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ২৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্রেডরিক পোডা। ৭২ মিনিটে নাজমুল হোসেনের গোলে ব্যবধান কমালেও নবম হার এড়াতে পারেনি আরামবাগ। এই হারের ১০ ম্যাচে এক পয়েন্ট নিয়ে প্রিমিয়ার লিগে একদম তলানিতে আছে আরামবাগ। পাঁচ ম্যাচ পর জয় পাওয়া পুলিশ ১২ পয়েন্ট নিয়ে আছে অষ্টম স্থানে।

মন্তব্য