kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৩ রজব ১৪৪২

দশে-দশ চায় বাংলাদেশ

দুই বছরের কঠিন অভিযানে যখন এমন সব কাঁটা বিছানো, তখন তুলনায় এই উইন্ডিজ তামিমদের কাছে অনেক সহজবোধ্যই। ক্যারিবীয়দের কাছ থেকে তাই ১টি পয়েন্টও হাতছাড়া করতে চায় না তারা। দুই ম্যাচ জিতে এরই মধ্যে ২০ পয়েন্ট জমা করেছে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডে আসল পরীক্ষা শুরুর আগে আজ ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচ থেকে আরো ১০ পয়েন্ট চাওয়াটা বাছাই পর্ব এড়িয়ে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার পথে আরেকটু এগিয়ে থাকার পথ সুগম করতেই।

মাসুদ পারভেজ, চট্টগ্রাম থেকে   

২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



দশে-দশ চায় বাংলাদেশ

ছবি : মীর ফরিদ, চট্টগ্রাম থেকে

প্রশ্নপত্র হাতে এসে গেছে। পাস করতে মরিয়া ছাত্র উত্তরপত্রে লিখতেও শুরু করে দিয়েছে। সবার আগে ‘কমন’ পড়া প্রশ্নের উত্তর লেখায় মনোযোগী সেই ছাত্রের জায়গায় এই বাংলাদেশ দলের নামটিই বসিয়ে নিতে পারেন, যে দলটি জানে দুই বছর ধরে চলা পরীক্ষায় প্রশ্ন ‘কমন’ নাও পড়তে পারে এবং তাতে কখনো আংশিক কিংবা কখনো পুরো নম্বরও ছুটে যেতে পারে। শেষ হিসাবে যা পাস নম্বর নিয়েও টান দিতে পারে। তাই উত্তর জানা প্রশ্নেই আগে ‘দশে-দশ’ নিশ্চিতের আকাঙ্ক্ষায় পরীক্ষা-নিরীক্ষার ঝুঁকি নিতেও দ্বিধা তামিম ইকবালদের।

যাঁদের কাছে ‘কমন’ পড়া প্রশ্নটি এই ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যাদের তরুণ ও অনভিজ্ঞ এক দল নিয়ে বাংলাদেশ সফরে আসার কারণ অজানা নয় কারোরই। এদের বিপক্ষে টানা দুই জয় দিয়ে ১০ মাস পর স্বাগতিকরা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরেইনি শুধু, আইসিসি ওয়ানডে সুপার লিগ নামের ২০২৩ বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে শুভ সূচনাও করেছে। আড়াই বছর পরে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপে স্বাগতিক ভারত ও এই সুপার লিগের অন্য শীর্ষ সাত দল সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে। যে সুযোগ লুফে নিতে আগামী দুই বছরে দেশে এবং দেশের বাইরে চারটি করে তিন ম্যাচের সিরিজ থেকে সেরাদের মধ্যে থাকার মতো পয়েন্টও তুলে নিতে হবে বাংলাদেশকে।

যা তুলে নেওয়ার পথে দুর্বোধ্য চ্যালেঞ্জও তো কম নয়। দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে খেলতে হবে তাদের সঙ্গে। এর আগে এই মার্চেই বসতে হচ্ছে প্রথম কঠিন প্রশ্নের উত্তর লেখায়। ওয়ানডে সুপার লিগে যা বাংলাদেশের জন্য প্রথম বিরুদ্ধ কন্ডিশনের চ্যালেঞ্জও। সফরটি যে নিউজিল্যান্ডে! সেখানে গিয়ে ওয়ানডে সিরিজ থেকে পয়েন্ট পাওয়ার আগাম নিশ্চয়তাও নেই। দেশের মাটিতে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডও নিশ্চয়ই পয়েন্ট পাওয়া যথাসম্ভব কঠিন করে তুলতে আসবে। নিজেদের ডেরায় যারা সহজ শিকার, সেই জিম্বাবুয়েও তাদের মাটিতে ছেড়ে কথা বলতে চাইবে না। আয়ারল্যান্ডের উইকেট-কন্ডিশনও বৈরী হওয়ার কথা।

দুই বছরের কঠিন অভিযানে যখন এমন সব কাঁটা বিছানো, তখন তুলনায় এই ওয়েস্ট ইন্ডিজ তামিমদের কাছে অনেক সহজবোধ্যই। ক্যারিবীয়দের কাছ থেকে তাই ১টি পয়েন্টও হাতছাড়া করতে চায় না তারা। দুই ম্যাচ জিতে এরই মধ্যে ২০ পয়েন্ট জমা করেছে বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডে আসল পরীক্ষা শুরুর আগে আজ ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচ থেকে আরো ১০ পয়েন্ট চাওয়াটা বাছাই পর্ব এড়িয়ে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার পথে আরেকটু এগিয়ে থাকার পথ সুগম করতেই।

জেসন মোহাম্মদের ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করার লক্ষ্য ছাপিয়ে তাই ওয়ানডে অধিনায়ক তামিমের কাছে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে এটিই, ‘আমরা সিরিজ জিতে গেছি বটে, তবে আরো ১০টি পয়েন্ট পাওয়ার সুযোগ আছে।’ সিরিজ জিতে যাওয়ায় শেষ ম্যাচের একাদশে অনেককে সুযোগ দেওয়ার আলোচনাও স্তিমিত এ জন্যই। যদিও দ্বিতীয় ওয়ানডে জেতার পর তামিম পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কিন্তু আগের দিন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান ৩০ পয়েন্টের জন্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিপক্ষে মত দেওয়ায় সে মনোভাব বদলে যেতেও সময় লাগেনি। তামিমের বক্তব্যেও সেই সুর, ‘আমরা খুব অল্প কিছু পরিবর্তন আনতে পারি।’

সে ক্ষেত্রে একাদশে রুবেল হোসেনের জায়গায় মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন কিংবা তাসকিন আহমেদের একজনকে দেখা যেতে পারে। নতুন কারো অভিষেকের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যায় না। তবে যে-ই একাদশে আসুক, আসবেন পুরো ৩০ পয়েন্টের চাহিদাপত্র হাতে নিয়েই, ‘যারা আসবে, তারাও ম্যাচ জেতাতে পারে। অতীতেও সুযোগ পেয়ে তারা ভালো করেছে। আমাদের ড্রেসিংরুমে তাড়না প্রচণ্ড। সবাই মাঠে নেমে ভালো করতে চায়। আশা করি, এই ধারাবাহিকতা চলতে থাকবে। এই ম্যাচ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সিরিজ জিতলেও আরো ১০ পয়েন্ট পাওয়ার আছে।’

পেলে ‘কমন’ পড়া প্রশ্নে দশে-দশও যে নিশ্চিত হয়!

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা