kalerkantho

শনিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৪ রজব ১৪৪২

চ্যাম্পিয়নস ট্রফি হকি আবার পেছাল

আগামী ১১ থেকে ১৯ মার্চ ঢাকায় হওয়ার কথা ছয় দলের এ আসর। সে অনুয়ায়ী সূচিও তৈরি হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু কাল এশিয়ান হকি ফেডারেশন (এএইচএফ) দিয়েছে টুর্নামেন্ট স্থগিতের খবর।

২৩ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : করোনার মাঝে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস ট্রফি আয়োজন করতে গিয়ে বারবার পরিস্থিতি বিচার করতে হচ্ছিল এশিয়ান হকি ফেডারেশনের। তাতে তাদের মনে হয়েছে মার্চে ওই আসরের আগে এই মুহূর্তে প্রতিটি দল আসলে সমান অবস্থায় নেই।

কোরিয়া করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, মালয়েশিয়ায় নতুন করে লকডাউন দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশই বা এই টুর্নামেন্ট আয়োজনে কতটা ঝুঁকিমুক্ত—সে সব কিছু খতিয়ে দেখে আবারও টুর্নামেন্টটা পিছিয়েই দেওয়া হয়েছে। আগামী ১১ থেকে ১৯ মার্চ ঢাকায় হওয়ার কথা ছয় দলের এ আসর। সে অনুয়ায়ী সূচিও তৈরি হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু কাল এশিয়ান হকি ফেডারেশন (এএইচএফ) দিয়েছে টুর্নামেন্ট স্থগিতের খবর। এএইচএফ প্রেসিডেন্ট ফিউমিও ওগুরা দুঃসংবাদ দেওয়ার মতো করেই জানিয়েছেন, ‘টুর্নামেন্টটা আবারও স্থগিত করা আমাদের জন্য কঠিন একটা সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু স্বাগতিক দেশ, অংশগ্রহণকারী দল এবং এফআইএইচের সঙ্গে আলোচনা করেই আমাদের এই ঘোষণাটা দিতে হয়েছে। খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা আমাদের কাছে সবার আগে, আর এই পরিস্থিতিতে প্রতিটি দলকে সমান সুযোগও দিতে পারছি না আমরা। কোথাও হয়তো স্বাভাবিক খেলাধুলা চলছে, কিন্তু আবার কোথাও অনুশীলনটাও সম্ভব হচ্ছে না কঠোর লকডাউনের কারণে। সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত।’ ছেলেদের পাশাপাশি কোরিয়ায় হতে যাওয়া মেয়েদের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিটাও স্থগিত করা হয়েছে।

জানানো হয়েছে, আগামী সেপ্টেম্বরে মেয়েদের এবং অক্টোবরে হতে পারে ছেলেদের আসর। কাল এএইচএফের ওয়েবসাইটে টুর্নামেন্ট স্থগিতের খবর চলে এলেও বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন অবশ্য কোনো চিঠি পায়নি। তবে সহসভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার জানিয়েছেন এমন কিছুর শঙ্কা তারা করেছেন, ‘আমাদের এখানকার পরিস্থিতি, প্রস্তুতি নিয়ে ওরা আমাদের কাছে জানতে চেয়েছিল। অন্যান্য দেশের সঙ্গেও আলোচনা চলছিল বলে জানি। আমরা আমাদের দিকটা বলেছি, ৭২ ঘণ্টা আগে করা করোনা সনদ নিয়ে এলে কোয়ারেন্টিনের প্রয়োজন হবে না বলেও জানিয়েছি। কিন্তু দু-একটি দেশে সমস্যা আছে বলে জানি। এমন সিদ্ধান্ত তাই একেবারে অপ্রত্যাশিত নয়।’ টুর্নামেন্টের জন্য বাংলাদেশ দল দিন দশেক হলো প্রস্তুতি শুরু করেছে। অক্টেবরে আসর পিছিয়ে যাওয়ার খবরে কোচ মাহবুব হারুন মনে করছেন না ক্যাম্পটি আর চালু থাকবে, ‘অক্টোবরে টুর্নামেন্ট হলে নিশ্চয় ক্যাম্পটি আর চালানো হবে না। এই সময়টায় বরং ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেলোয়াড়দের ব্যস্ত রাখা যায়।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা