kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭। ৪ মার্চ ২০২১। ১৯ রজব ১৪৪২

অলিম্পিকে চোখ জহিরের

১৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অলিম্পিকে চোখ জহিরের

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ৪০০ মিটারে মিলজার হোসেনের ইলেকট্রনিক (টাইমিং) রেকর্ড ভেঙে দিয়েছিলেন আগেই। কাল হাতঘড়িতে ৩০ বছরের পুরনো মেহেদী হাসানের রেকর্ডেও ভাগ বসালেন জহির রায়হান। ৪৭.২০ সেকেন্ডে তিনি যখন ফিনিশিং টেপ ছুঁয়েছেন, দ্বিতীয় স্থানে থাকা প্রতিযোগী তখনো কয়েক মিটার পেছনে। স্প্রিন্টে আগের দিন দাপট দেখিয়েছেন মোহাম্মদ ইসমাইল, কাল সেই আলোটাই নিজের দিকে টেনে নিয়েছেন জহির।

দুজনের মধ্যে অলিম্পিকে সুযোগ পাওয়ার অদৃশ্য একটা লড়াইও আছে। কাল জিতে সেই স্বপ্নের কথাই বলেছেন জহির, ‘চেষ্টা ছিল খুব ভালো একটা টাইমিং করার, যেহেতু সামনে অলিম্পিক। এখানে তাই নিজেকে প্রমাণ করার ব্যাপার ছিল। হাতঘড়িতে আজ আমার সেরা টাইমিংই হয়েছে। আরো ভালো হতে পারত। কিন্তু করোনায় অনুশীলন করাটা অনেক কঠিন ছিল আর এই ট্র্যাকেও গতি তোলাটা কঠিন।’ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের জোড়াতালি দেওয়া ট্র্যাক নিয়ে নতুন কিছু বলার নেই।

আগের দিন ১০০ মিটার রিলে করেছেন। আজ ২০০ মিটার এবং ৪০০ মিটার রিলে মিলিয়ে চার সোনার লক্ষ্য জহিরের। সে ক্ষেত্রে আসর সেরাও হতে পারেন তিনি। ১৫০০ মিটারে সোনা জেতা সুমি আক্তার কাল ৩০০০ মিটার জিততে পারেননি অল্পের জন্য। ফিনিশিং লাইন ছোঁয়ার মাত্র কয়েক পা আগে শরীরের ভারসাম্য হারিয়ে পড়ে যান সেনাবাহিনীর এই দৌড়বিদ। পেছন থেকে এসে নৌবাহিনীর রিংকি বিশ্বাস শুধু সেরাই হননি, ১০ মিনিট ৪৩.৩০ সেকেন্ডে গড়েছেন নতুন জাতীয় রেকর্ডও। 

ছেলেদের ৩০০০ মিটার স্টিপল চেজ জিতেছেন নৌবাহিনীর সোহেল রানা। এ ছাড়া দিনের অন্যান্য ইভেন্টের মধ্যে লং জাম্পে সেনাবাহিনীর সোনিয়া আক্তার, ১০০ মিটার হার্ডলসে নৌবাহিনীর তামান্না আক্তার, ১১০ মিটার হার্ডলসে সেনাবাহিনীর মির্জা হাসান, মেয়েদের ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে নৌবাহিনীর সাবিহা আল সোহা, লং জাম্পে নৌবাহিনীর আল আমিন ও সেনাবাহিনীর সোনিয়া আক্তার, বর্শা নিক্ষেপে সেনাবাহিনীর মনিরুজ্জামান ও পাপিয়া আক্তার ও হ্যামার থ্রোতে সোনা জিতেছেন নৌবাহিনীর মাহফুজ হাসান। দুই দিন শেষে ১২ সোনা নিয়ে এগিয়ে নৌবাহিনী আর সেনাবাহিনী জিতেছে ৯ সোনা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা