kalerkantho

শনিবার । ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৪ রজব ১৪৪২

জয়ে শুরু শেখ রাসেলের

শুরুর দিকে ব্রাদার্স গোলরক্ষকের দুটি হাস্যকর ভুলে গোল পেয়ে যায় শেখ রাসেল। ১৫ মিনিটেই তারা ২-০তে এগিয়ে। তাতে জেতাটা যত সহজ হবে ভাবা হয়েছিল, তা আসলে হয়নি। পরের দিকে নিজেরাই সহজ সুযোগ নষ্ট করে ২-১ গোলের একরকম স্বস্তির জয় পেয়েছে।

১৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জয়ে শুরু শেখ রাসেলের

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শুরুর দিকে ব্রাদার্স গোলরক্ষকের দুটি হাস্যকর ভুলে গোল পেয়ে যায় শেখ রাসেল। ১৫ মিনিটেই তারা ২-০তে এগিয়ে। তাতে জেতাটা যত সহজ হবে ভাবা হয়েছিল, তা আসলে হয়নি। পরের দিকে নিজেরাই সহজ সুযোগ নষ্ট করে ২-১ গোলের একরকম স্বস্তির জয় পেয়েছে।

দুই দলেরই মূল গোলরক্ষক এদিন মাঠে ছিলেন না। ব্রাদার্সের তিতুমীর চৌধুরীর বদলে পোস্টের নিচে দাঁড়ানো মহিউদ্দিন রানু বক্সের বাইরে এসে বল ধরে সবাইকে অবাক করেছেন। ম্যাচের তখন ১০ মিনিট। বক্সের ঠিক বাইরে পাওয়া ফ্রি কিকটা কে কাজে লাগাবেন—বখতিয়ার দুশোবেকভ নাকি সিয়োভুশ আসরভ? এই ভাবনার মধ্যেই মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ দারুণ এক শটে বল জালে জড়িয়ে দিয়েছেন। এর পাঁচ মিনিট পর রানুর কাণ্ড আরো বিস্ময়কর। আগের গোলে তাও আব্দুল্লাহর পায়ের মুনশিয়ানা ছিল। পরেরটি স্রেফ গোলরক্ষকের ভুলে। একটা লং বল ক্লিয়ার করতে একই রকম বক্সের বাইরে বেরিয়ে এসে রানু যে শট নিয়েছেন সেটি রাসেল স্ট্রাইকার জিয়ানকাকার্লো লোপেজের গায়ে লেগে উল্টো পোস্টমুখী, লোপেজই দৌড়ে গিয়ে পরে হেডে বলটা জালে জড়িয়ে দিয়েছেন।

এমন ছন্নছাড়া শুরুর পর ব্রাদার্সের ঘুরে দাঁড়ানোটা রাসেলকে কিছুটা হকচকিয়ে দিয়েছে। ২৫ মিনিটেই কাউন্টার অ্যাটাকে প্রথম গোলের সুযোগ তৈরি করে ব্রাদার্স। সেবার আরিফুল ইসলামকে ওয়ান অন ওয়ানে ফিরিয়েছেন রাসেল গোলরক্ষক সবুজ দাস। ৩২ মিনিটে ব্যবধান কমানো সেই গোলটাও পেয়ে যায় তারা। কর্নার থেকে আসা বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে দিদারুল হক হাত লাগিয়ে ফেললে। তাতে পেনাল্টি এবং স্পটকিক থেকে গোল করার সে সুযোগ হাতছাড়া করেননি সিয়ো জুনাপিও। ২-১-এ শেষ হওয়া প্রথমার্ধের পর রাসেল এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছে একাধিক। বখতিয়ারের ফ্রি কিকে ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার লোপেজ অদ্ভুতভাবে পোস্টের সামনে থেকে বল বাইরে মেরেছেন। আরেকবার প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের ভুলে একা বল নিয়ে বক্সে ঢুকেও শট নিতে দেরি করায় সুযোগ হারিয়েছেন, পরে তাঁর কাটব্যাক থেকে নেওয়া খালেকুরজামানের শট হয় ব্লকড।

এমন ভুলের বড় মূল্য যে দিতে হয়নি সেটিই রাসেলের জন্য স্বস্তির। কারণ যোগ করা সময়ে মোহাম্মদ সুজনের দূরপাল্লার শট ক্রসবারে লেগে ফেরাতেই তো লিডটা অক্ষুণ্ন থাকে সাইফুল বারীর দলের। শেষ পর্যন্ত জয় এবং ৩ পয়েন্ট, সেটা প্রথম ম্যাচেই। তবে লিগের বাকি ম্যাচগুলোতে স্ট্রাইকারদের কাছ থেকে আরো নিখুঁত পারফরম্যান্সই নিশ্চিত আশা করবেন বারী।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা