kalerkantho

রবিবার। ২২ ফাল্গুন ১৪২৭। ৭ মার্চ ২০২১। ২২ রজব ১৪৪২

ঘাম ঝরিয়ে জয় আবাহনীর

১৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘাম ঝরিয়ে জয় আবাহনীর

ক্রীড়া প্রতিবেদক : করোনা, চোট, নিষেধাজ্ঞায় আবাহনীর সব মিলিয়ে ৯ আর নিয়মিত একাদশের চারজন নেই লিগের প্রথম ম্যাচে। পুলিশের বিপক্ষে ম্যাচটি তাই কঠিন হবে জানতেন মারিও লেমোস। সেই কঠিন ম্যাচ পেরিয়েছে আবাহনী শেষ বাঁশির পাঁচ মিনিট আগে কেরভেন্স বেলফোর্টের করা একমাত্র গোলে।

মিডফিল্ডার সোহেল রানা ও ডিফেন্ডার বাদশা মিয়া ফেডারেশন কাপে রেফারিকে লাঞ্ছিত করে নিষেধাজ্ঞায় পড়েছেন, চোটে পড়েছে রায়হান হাসান ও জুয়েল রানা। রক্ষণে তাই ৩৫ বছর বয়সী ওয়ালি ফয়সাল শুরু থেকে, মাঝমাঠে ফিটনেসের অভাবে ভুগতে থাকা মামুনুল ইসলাম। আবাহনীর খেলা গতি হারিয়েছিল তাই শুরু থেকে। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার ফার্নান্দো তোরেস ও রাফায়েল অগাস্তোও নিষ্প্রভ থাকায় পুরো প্রথমার্ধে গোলের পরিষ্কার কোনো সুযোগই তৈরি করতে পারেনি তারা। দ্বিতীয়ার্ধের মিনিট পনেরো পর তোরেসের ক্রসে নাবিব নেওয়াজ মাথা ছোঁয়াতে পারেননি। নাবিব বাঁ দিকে খেলছিলেন যেন নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে। পরে মামুনুলকে উঠিয়ে রুবেল রানাকে নামালে নাবিব তাঁর নাম্বার টেন পজিশন ফিরে পান, অগাস্তো নেমে যান হোল্ডিংয়ে। ওদিকে রুবেল উইংয়ে গতি ফেরান। এই সময়ই আবাহনীকে সবচেয়ে ধারালো মনে হয়েছে। ৮০ মিনিটে ওয়ালির কর্নার নাসিরউদ্দিনের মাথা ছুঁয়ে দ্বিতীয় পোস্টে এলে মাসিহ সাইঘানি গোল পাওয়ার মতোই হেড নিয়েছিলেন; কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় পোস্ট। ৮৩ মিনিটে ডিফেন্সচেরা পাসে বেলফোর্ট বল বের করে দিয়েছিলেন নাবিবকে, পা ছোঁয়াতে পারলেই হতো। অল্পের জন্য সেই বল মিস করেছেন নাবিব। এর দুই মিনিট পরই রুবেলের অ্যাসিস্ট থেকে বেলফোর্টের গোল। রুবেলের নিচু ক্রসটি পোস্টের মুখে ক্লিয়ার করতে পারেননি পুলিশ ডিফেন্ডাররা, দ্বিতীয় পোস্টে দাঁড়িয়ে সেই বল জালে ঠেলেছেন হাইতিয়ান ফরোয়ার্ড।

সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল পুলিশও। পিছিয়ে পড়ার পরই বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া শটে আবাহনীর ক্রসবার কাঁপিয়েছেন পুলিশের কিরগিজ মিডফিল্ডার আহমেদভ। প্রথম ম্যাচ থেকে আবাহনীর ৩ পয়েন্ট পাওয়াতে ভাগ্যের ছোঁয়াও আছে।

মন্তব্য