kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ মাঘ ১৪২৭। ২১ জানুয়ারি ২০২১। ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

মমিনুলের অস্ত্রোপচার দুবাইতে

৫ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মমিনুলের অস্ত্রোপচার দুবাইতে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ফিল্ডিংয়ের সময় ডান হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলে বল লাগলেও তেমন অস্বস্তি না হওয়ায় তিনি ব্যাটিং করতেও নেমে গিয়েছিলেন। সর্বনাশটি সম্ভবত হয়ে যায় তাতেই। গত ২৮ নভেম্বর জেমকন খুলনার বিপক্ষে ম্যাচ খেলে রাতে হোটেলে ফিরেই মমিনুল হক দেখেন হাতের অবস্থা বেগতিক। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানোর পর চিড়ও ধরা পড়ায় বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ থেকেও ছিটকে পড়েন গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের এই ক্রিকেটার। জানুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বাংলাদেশ সফর সামনে রেখে এই চোট দ্রুত সারিয়ে তুলতে লাগবে অস্ত্রোপচারও। সে জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) টেস্ট অধিনায়ককে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যত দূর জানা গেছে, সেখানে মমিনুলের অস্ত্রোপচার হওয়ার কথা আছে ৮ ডিসেম্বর।

তার আগে অবশ্য যথাসময়ে ভিসাও পেতে হবে তাঁকে। আপাতত ভিসার আবেদন করে দুবাইয়ের ফ্লাইট ধরার অপেক্ষায় মমিনুল। ৬ ডিসেম্বরের মধ্যেই তিনি ভিসা পেয়ে যাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। দেশের বাইরে কারো অস্ত্রোপচার করাতে হলে বিসিবি সাধারণত অস্ট্রেলিয়া কিংবা ইংল্যান্ডে পাঠিয়ে থাকে। মমিনুলের ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম হওয়ার কারণ করোনার সময়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতের শিথিল কোয়ারেন্টিন নীতিমালা। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন তেমনই, ‘আমরা মমিনুলকে দুবাইতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি, কারণ সেখানে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো কোয়ারেন্টিন করতে হবে না।’ নিয়মানুযায়ী এখান থেকে করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়ে ফ্লাইটে উঠতে হবে। দুবাইতে গিয়ে করাতে হবে আরেকটি পরীক্ষা। তাতে নেগেটিভ হলে কোয়ারেন্টিন না করেই অস্ত্রোপচারের টেবিলেও উঠতে পারবেন মমিনুল। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিন টেস্টের সিরিজের জন্য অধিনায়ককে দ্রুত সারিয়ে তোলার ভাবনা থেকে বিসিবি তাই ঝুঁকেছে দুবাইয়ের দিকেই। যদিও সিরিজটি শেষ পর্যন্ত তিন টেস্টের হবে কি না, তা নিশ্চিত নয় এখনো। নীতিনির্ধারকরা এরই মধ্যে একটি টেস্ট কমানোর ইঙ্গিতও দিয়ে রেখেছেন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা