kalerkantho

রবিবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৯ নভেম্বর ২০২০। ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

তাবিথকে হারিয়ে সহসভাপতি মহি

১ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তাবিথকে হারিয়ে সহসভাপতি মহি

ক্রীড়া প্রতিবেদক : টাইব্রেকে হেরে গেলেন তাবিথ আউয়াল। ফুটবলের টানা দুইবারের এই সহসভাপতিকে চার ভোটে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো সহসভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মহিউদ্দিন আহমেদ মহি।

৩ অক্টোবর বাফুফে নির্বাচনে ২১ পদের নির্বাহী কমিটির ২০ জন নির্বাচিত হলেও চার সহসভাপতি পদের একটিতে টাই হয়েছিল। ৬৫ ভোট করে পেয়েছিলেন আগের কমিটির দুই সহসভাপতি তাবিথ আউয়াল ও মহিউদ্দিন মহি। এই টাই ভাঙতে দুই প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে গতকাল আবার ভোট হয়েছে, তাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী তাবিথকে (৬৩ ভোট) চার ভোটে হারিয়ে সহসভাপতি পদ ধরে রেখেছেন মহি (৬৭ ভোট)। ১৩৯ কাউন্সিলরের মধ্যে গতকাল ভোট দিয়েছেন ১৩০ জন। ভোটে জিতেই মহি বর্তমান কমিটি ও ভোটারদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন, ‘বর্তমান কমিটির সভাপতিসহ সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এই নির্বাচনে নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকার জন্য। এ জন্য ভোটাররা তাঁদের পছন্দ অনুযায়ী ভোট দিতে পেরেছেন। ফুটবলে আমাকে কাজ করার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য ভোটারদের কাছেও আমি কৃতজ্ঞ।’

তবে বাফুফে নির্বাচনের আগে গত কমিটির দুই সহসভাপতি মহিউদ্দিন মহি ও বাদল রায় বিদ্রোহ করে বাফুফের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সমালোচনায় মুখর হয়েছিলেন। সোচ্চার হয়েছিলেন বাফুফের আর্থিক অনিয়মের বিরুদ্ধে। এ জন্য নির্বাচনে দুজনের জায়গা হয়নি কাজী সালাউদ্দিন প্যানেলে। বাদল রায় সভাপতি পদে মনোনয়নপত্র কিনে প্রত্যাহার করেছেন আর মহি সমন্বয় পরিষদ থেকে সহসভাপতি পদে নির্বাচন করেন। নির্বাচনে জিতে তিনি আবারও পুরনো সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের সঙ্গী। মাত্র এক মাস আগের সেই বৈরিতার প্রসঙ্গ তুলতেই চতুর্থবারের সভাপতি সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘আমাদের সঙ্গে কারো কোনো মতের অমিল ছিল না। আপনার সঙ্গে আমার মতের ভিন্নতা থাকতে পারে। তা ছাড়া ডেলিগেটরা যে রায় দিয়েছেন সেটাই চূড়ান্ত, সেটা মেনেই সামনে এগোতে হবে। সুতরাং একসঙ্গে কাজ করার সুযোগ অবশ্যই আছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা