kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

চাপ নিয়েই ন্যু ক্যাম্পে রিয়াল

২৪ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চাপ নিয়েই ন্যু ক্যাম্পে রিয়াল

‘এল ক্লাসিকো এমন এক ম্যাচ, যা ছোট থেকেই খেলার স্বপ্ন দেখে ফুটবলাররা’—মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকোর আগে জানালেন রিয়াল মাদ্রিদ গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়া। স্বপ্নটা অনেক আগে পূরণ হয়েছে তাঁর। তবে আজ ন্যু ক্যাম্পে হেরে গেলে মৌসুমের শুরুটা দুঃস্বপ্নের হবে রিয়ালের। লা লিগায় কাদিজের পর চ্যাম্পিয়নস লিগে শাখতার দোনেেস্কর কাছেও হেরেছে জিনেদিন জিদানের দল।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার কাছে হারলে লা লিগা ফসকে যাবে, এমন নয়। তবে বাড়তে থাকা চাপটা পাহাড় হয়ে চেপে বসবে জিদানের কাঁধে। ফরাসি এই কিংবদন্তি অবশ্য আত্মবিশ্বাসী হতে পারেন একটা রেকর্ডে। কোচ হিসেবে ন্যু ক্যাম্পে পাঁচ ম্যাচ খেলে কখনো হারেননি তিনি। আজও জয়ে চোখ তাঁর, ‘আমরা না জেতার জন্য কখনো মাঠে নামি না। কঠিন সময়ে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হয়। শুধু ফুটবলে নয় জীবনেও। একসঙ্গে নেতিবাচক দিকগুলো ইতিবাচক করতে নামব আমরা।’ গতবার ভিনিসিয়াস জুনিয়র ও মারিয়ানো দিয়াজের গোলে বার্নাব্যুতে কাতালানদের হারিয়েছিল রিয়াল। এ জন্য লা লিগা প্রেসিডেন্ট হেভিয়ার তেবাস জানাচ্ছেন, ‘মুখোমুখি সেরা দুই ক্লাব। এটা এখনো বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ক্লাব ম্যাচ।’

বার্সেলোনা ফেভারিট হয়ে নামবে আজকের এল ক্লাসিকোয়। রিয়ালের মতো লা লিগায় সর্বশেষ ম্যাচে তারাও হেরেছে ১-০ গোলে। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগে ফেরেঞ্জভারোসকে ৫-১ ব্যবধানে উড়িয়ে ফিরে পেয়েছে আত্মবিশ্বাস। প্রাণভোমরা হয়ে লিওনেল মেসি তো আছেনই। সব মিলিয়ে এই মৌসুমে বার্সার জার্সিতে পাঁচ ম্যাচে দুই গোল আর চার অ্যাসিস্ট তাঁর। কে জানে, সেরাটা হয়তো তুলে রেখেছেন এল ক্লাসিকোর জন্যই। ম্যাচের আগে বার্সা কর্তাদের তুলোধুনো করলেও জেরার্দ পিকেও প্রশংসায় পঞ্চমুখ মেসির,‘ বার্সা যেভাবে কভিড-১৯ সামাল দিচ্ছে তাতে আমরা কেউ সন্তুষ্ট নই। আমি মেসিকে ধরে রাখতে বলেছিলাম। ন্যুক্যাম্প মেসির নামে করা উচিত, ওই সবকিছুর দাবিদার।’

চোটের জন্য এডেন হ্যাজার্ড, দানি কারভাহাল, মার্টিন ওডেগার্ডসহ নিয়মিত দলের অনেকেই নেই রিয়াল মাদ্রিদের। তবে সুখবর অধিনায়ক সের্হিয়ো রামোসের ফিট হয়ে ওঠা। বার্সেলোনার নির্ভরতা অভিজ্ঞতার সঙ্গে তারুণ্যের মিশেলে। মোট আটজন—নেতো, ডেস্ট, পিয়ানিচ, জুনিয়র ফিরপো, রিকি পুজ, ত্রিনকাও, পেদ্রি, আরওহোরা প্রথমবার খেলতে পারেন এল ক্লাসিকোয়। ১৭ বছরের আনসু ফাতিও গড়ে দিতে পারেন ম্যাচের ভাগ্য। তাঁদের নিয়ে কোচ হিসেবে প্রথমবার এল ক্লাসিকো খেলতে যাওয়া কোম্যানের প্রত্যয়, ‘প্রতিদিন ওরা যে কঠোর পরিশ্রম করছে তাতে খেলার দাবি করতেই পারে। খেলোয়াড় হিসেবে এল ক্লাসিকোর অভিজ্ঞতা আছে আমার। একবার জিতেছিলাম ৫-০ গোলেও। তবে রিয়াল আগের দুই ম্যাচের মতো হয়তো জায়গা ছাড়বে না আমাদের জন্য।’ মার্কা

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা