kalerkantho

সোমবার । ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৩ নভেম্বর ২০২০। ৭ রবিউস সানি ১৪৪২

অলিম্পিকে তৈরি হয়েই যাবেন বাকীরা

জার্মানি ও কোরিয়ায় প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের পরিকল্পনা, অংশ নেবেন দুটি বিশ্বকাপে।

২৩ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : ছয় মাস শ্যুটিংয়ের বাইরে থেকে আবার খেলায় ফেরা শুধু তো নয়, অলিম্পিকের জন্য তৈরি হওয়ার চ্যালেঞ্জ আব্দুল্লাহেল বাকীদের। গত দুই বছরই তো হেলায় কেটেছে। ২০১৮-এর কমনওয়েলথ গেমসের পর বিদেশি কোচের বিদায় থেকেই পথহারা শ্যুটিং, যার ছাপ দেখা গেছে এসএ গেমসে। টোকিও অলিম্পিকের জন্য এই শ্যুটারদের তৈরি করতে তাই আটঘাট বেঁধেই নামতে হচ্ছে ফেডারেশনকে। তাতে দুটি বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া ছাড়াও দুই দফায় বিদেশে ক্যাম্প এবং নতুন বিদেশি কোচ থাকছে চাহিদাপত্রে।

করোনার কারণে নয়াদিল্লিতে স্থগিত হয়ে যাওয়া বিশ্বকাপটি হবে আগামী বছরের ১৮ থেকে ২৯ মার্চ। তার পরের বিশ্বকাপটি কোরিয়ায় ১৬ থেকে ২৭ এপ্রিল। জুলাইয়ে অলিম্পিকের আগে এ দুটি বিশ্বকাপেই অংশ নেবেন বাকীরা। মার্চের দিল্লি বিশ্বকাপের জন্য জানুয়ারি থেকে জার্মানিতে প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের পরিকল্পনা ফেডারেশনের। মহাসচিব ইন্তেখাবুল হামিদ জানিয়েছেন, তাঁরা এরই মধ্যে জার্মানিতে যোগাযোগ শুরু করেছেন, ‘ওরা এখনো বাইরের শ্যুটারদের জন্য প্রশিক্ষণের দরজা খোলেনি। তবে আমরা আশাবাদী জানুয়ারি আসতে আসতে পরিস্থিতির উন্নতি হবে এবং আমাদের শ্যুটাররা ওখানে গিয়েই কোয়ালিটি ট্রেনিং নিতে পারবে। শেষ পর্যন্ত জার্মানিতে যাওয়া না হলেও বিকল্প ভেবে রেখেছি আমরা। সে ক্ষেত্রে আমরা কোরিয়ায় যাব।’ জার্মানিতে যাওয়া হলেও কোরিয়ায় প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের পরিকল্পনা আছে ফেডারেশনের। সেটি যাওয়া হবে দিল্লি বিশ্বকাপ থেকে ফিরে কোরিয়া বিশ্বকাপের প্রস্তুতির জন্য।

ইন্তেখাবুল জানিয়েছেন এরই মধ্যে তাঁরা কোচের সন্ধানও শুরু করেছেন। অলিম্পিক সামনে রেখে বেশির ভাগ হাই প্রফাইল কোচ বিভিন্ন দলের সঙ্গে জুড়ে গেছেন। কমনওয়েলথ গেমসে জোড়া রুপা জেতানো বাংলাদেশের সাবেক কোচ ক্লাভস ক্রিস্টিয়েনসেন যেমন এখন সিঙ্গাপুর দলের কোচ। তাঁর অধীন দুজন টোকিও অলিম্পিকের কোটাও পেয়েছেন। সেই মানের কোচ পেতে এখন বেগ পেতে হচ্ছে শ্যুটিং ফেডারেশনকে। ইন্তেখাবুলের পরিকল্পনা জার্মানিতে যাওয়া হলে সেখান থেকে ফিরে একজন কোরিয়ান কোচের অধীনই বাকীরা কোরিয়ায় প্রশিক্ষণে যাবেন, ‘আমরা আইএসএসএফের মাধ্যমে, নিজেদের পরিচিতি থেকে এবং আগে যাঁরা আমাদের কোচ ছিলেন তাঁদের খোঁজখবর করছি। জানুয়ারির আগে এ ব্যাপারে কিছু বলা যাবে না। তবে সম্ভাবনা আছে বাকীরা একজন কোরিয়ান কোচের অধীনই সে দেশে গিয়ে ক্যাম্প করবে। কভিড পরিস্থিতির কারণে সেটিও যদি কোনোভাবে ভেস্তে যায় তবে বিদেশি কোচ দেশেই প্রশিক্ষণ দেবেন—নিশ্চয়তা দিতে পারি।’ বাকীর সঙ্গে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলেই আতকিয়া হাসানের অলিম্পিকে অংশ নেওয়ার সম্ভাবনা। করোনা বিরতি থেকে ফিরেই এ দুজন গত সপ্তাহেই একটি আন্তর্জাতিক অনলাইন শ্যুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন।

মন্তব্য