kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

তবু অনিশ্চয়তায় ঘরোয়া হকি

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : দুই বছর পার হয়ে সময় শুধু গড়াচ্ছেই। হকির আরেকটি লিগ কবে হবে কেউ জানে না। করোনার কারণে অনেক দিন খেলাধুলাই বন্ধ। কিন্তু যখন থেকে আবার লিগ নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে, ফেডারেশন সভার পর সভা করছে। তাতে অগ্রগতি সামান্যই। কাল নির্বাহী কমিটির সভায় মোহামেডান, মেরিনাসের কর্মকর্তাদের শাস্তি প্রত্যাহার হলেও দলবদল, ক্লাব কাপ, লিগ কোনোটিরই সূচি জানাতে পারেনি ফেডারেশন। ঊষার ইস্যুটিও ঝুলে আছে।

কাল হকি ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির সভায় মোহামেডান, মেরিনাসের কর্মকর্তাদের শাস্তি প্রত্যাহার হলেও দলবদল, ক্লাব কাপ, লিগ কোনোটিরই সূচি জানাতে পারেনি ফেডারেশন। ঊষার ইস্যুটিও ঝুলে আছে।

গতবার লিগ না খেলায় ঊষার এ মৌসুমে প্রথম বিভাগে নেমে যাওয়ার কথা। কিন্তু ঊষা তার বিরুদ্ধে আবেদন দিয়ে রেখেছে। কাল সভা শেষে ফেডারেশন সভাপতি এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত জানিয়েছেন, ‘গঠনতন্ত্র পর্যালোচনা করে এবং হকির স্বার্থের কথা চিন্তা করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে চাই আমরা। সবাই চাইলে গঠনতন্ত্রও পরিবর্তন হতে পারে। আবার এমন কিছুও করা যাবে না, যাতে অন্যদের এমন কিছুতে উৎসাহ দেওয়া হয়ে যায়।’ সে জন্য আরো কিছুদিন সময় চেয়েছেন তিনি। তার মানে ঊষার ইস্যুটি সমাধান না হওয়া পর্যন্ত মোহামেডান, মেরিনার্সের শাস্তি প্রত্যাহারেও লিগ শুরুর প্রক্রিয়া এগোল না। ২০১৮-র জুনে হওয়া সর্বশেষ লিগের শেষ ম্যাচটি পণ্ড হয়ে যায় মোহামেডান ও মেরিনার্সের খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের উচ্ছৃঙ্খলতায়। তার শাস্তি হিসেবেই মোহামেডানের ম্যানেজার আরিফুল হক, সহকারী ম্যানেজার আসাদুজ্জামান ও মেরিনার্সের সাধারণ সম্পাদক হাসানউল্লাহ খানকে পাঁচ বছর এবং তাদের ম্যানেজার নজরুল ইসলাম তিন বছর নিষিদ্ধ হন। সেই শাস্তি প্রত্যাহার না হলে এই দুই ক্লাব লিগের কর্মকাণ্ডে অংশ নেবে না, এমন আলটিমেটাম দেওয়ার পরই কাল তা তুলে নেওয়া হয়েছে। এখন ঊষার ইস্যুটি সমাধান হওয়ার পর দলবদলের সময় দিতে হবে ক্লাবগুলোকে। এরপর তাদের প্রস্তুতির সময় লাগবে। লিগ কমিটির সম্পাদক আবু তাহের সভার আগে জানিয়েছিলেন, সব ইস্যুর সুরাহা হয়ে গেলে তারা হয়তো ডিসেম্বরে দলবদল দেবেন। সে ক্ষেত্রে খেলা কবে মাঠে গড়াবে, তা নিয়ে অনিশ্চিয়তা থাকছেই। কারণ জানুয়ারিতে জুনিয়র এশিয়া কাপ হওয়ার কথা, মার্চে আবার এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। এই সময় পুরোটাই জাতীয় দলের খেলোয়াড়রা ক্যাম্পে থাকবেন। তাহলে মার্চের আগে লিগ বা ক্লাব কাপই শুরু হবে কী করে?

ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ বলেছেন, ‘সে ক্ষেত্রে এপ্রিলেও লিগ হতে পারে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা