kalerkantho

শনিবার । ৮ কার্তিক ১৪২৭। ২৪ অক্টোবর ২০২০। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নাদালকে থামাবে কে?

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নাদালকে থামাবে কে?

তিনি ক্লে কোর্টের মুকুটহীন সম্রাট। ক্যারিয়ারের ১৯ গ্র্যান্ড স্লামের ১২টিই ফ্রেঞ্চ ওপেনে। প্রিয় রোলাঁ গারোয় হার মাত্র দুটি। এবারও ফেভারিট হয়ে প্যারিসে রাফায়েল নাদাল। আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া বছরের শেষ গ্র্যান্ড স্লামে কেউ কি সিংহাসন কেড়ে নিতে পারবেন নাদালের? র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকা নোভাক জোকোভিচ হতে পারেন যোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বী। সেই জোকোভিচও পিছিয়ে রাখছেন নিজেকে, ‘এটা ফ্রেঞ্চ ওপেন, কোনো প্রশ্ন ছাড়া ফেভারিট নাদালই।’

মেয়েদের এককে এমন দাপট নেই কারো। সবশেষ জাস্টিন হেনিন ২০০৫ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত রোলাঁ গারোয় শিরোপা জেতেন তিনবার। এর পর থেকে টানা দুইবারও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেননি কেউ। ২৩ গ্র্যান্ড স্লামজয়ী সেরেনা উইলিয়ামস এখানে জিতেছেন মাত্র তিনবার। তাও ২০০২, ২০১৩ ও ২০১৫ সালে। এবার জিততে পারলে পাশে বসবেন ২৪ গ্র্যান্ড স্লামজয়ী মার্গারেট কোর্টের। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অ্যাশলি বার্টি, ২০১৯-এ শিরোপা জেতা বিয়াংকা আন্দ্রেস্কু আর সবশেষ ইউএস ওপেন জয়ী নাওমি ওসাকার না থাকাটা স্বস্তির সেরেনার জন্য।

২০০৫ সালে ফ্রেঞ্চ ওপেনে অভিষেকে শিরোপা জেতেন রাফায়েল নাদাল। প্রিয় রোলাঁ গারোয় ৯৫ ম্যাচে হার মাত্র দুটি। একটি ২০০৯ সালে রবিন সোদারলিংকের কাছে, অপরটি ২০১৫-তে নোভাক জোকোভিচের বিপক্ষে। এবার করোনার জন্য ইউএস ওপেন খেলেননি নাদাল। রোমের ক্লে কোর্টে কোয়ার্টার ফাইনালে হেরেছেন ডিয়েগো শোয়ার্জমানের কাছে। এর পরও ১৩তম শিরোপায় চোখ নাদালের, ‘ভালো লাগছে প্যারিসে ফিরে। ফেদেরারের ২০ গ্র্যান্ড স্লামের রেকর্ডে চোখ আছে অবশ্যই। এ জন্য খেলতে হবে নিজের সর্বোচ্চটা।’ করোনায় টুর্নামেন্টটা সেপ্টেম্বরে পিছিয়ে আসায় প্যারিসে গরমের বদলে এখন ঠাণ্ডা। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় খেলাও হবে একটু ভারী বলে। সব মিলিয়ে চ্যালেঞ্জটা সহজ নয় নাদালের জন্য। রোলাঁ গারোয় নাদালের যোগ্য প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারেন এবারের ইউএস ওপেন জয়ী ডমিনিক থিয়েম। ফ্রেঞ্চ ওপেনে টানা দুই ফাইনালে নাদালের কাছে হেরেছেন থিয়েম। তবে ক্লেতে চারবার হারিয়েছেনও তাঁকে।  দেখা যাক, ফেদেরার, নাদাল, জোকোভিচদের উত্তরসূরি হতে পারেন কিনা থিয়েম। এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা