kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আর্মি স্টেডিয়ামে ফিরবে অ্যাথলেটিকস

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আর্মি স্টেডিয়ামে ফিরবে অ্যাথলেটিকস

ক্রীড়া প্রতিবেদক : করোনায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের মাঠ বেহাল। ঘাসের বন হয়ে ছিল। মাঠকর্মী দিয়ে তা না কাটিয়ে দা, কাস্তে লাগানো হয়েছে। তাতে কোথাও মাটি উঠে গেছে, কোথাও ছোট-বড় ঘাস। এ না হয় ঠিক করা যাবে। কিন্তু ট্র্যাক! তাতো করোনার আগে থেকেই জীর্ণ। ছেঁড়া-ফাটা যা আঠা দিয়ে লাগানো হয়েছিল টানা বর্ষায় তাও উঠে একসার।

ফলে অ্যাথলেটিকস ফেডারেশন খেলা ফেরাতে চেয়েও এই ট্র্যাকের পানে চেয়ে বারবার আটকে যাচ্ছিল। তবে অবশেষে আর্মি স্টেডিয়ামকে বিকল্প ভাবছে তারা। গত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ ট্র্যাকের অভাবে চট্টগ্রামের ঘাসের মাঠে হলেও করোনাপরবর্তী প্রথম মিট হতে পারে আর্মি স্টেডিয়ামের ট্র্যাকেই। ওখানকার ট্র্যাক সেনাবাহিনীর নিজস্ব কর্মকাণ্ডের কারণে ফাঁকা পাওয়া যায় না—এত দিন এমনই বলে আসছিলেন অ্যাথলেটিকস ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রকিব। তবে গত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ ঘাসের মাঠে করে সমালোচিত রকিব পরশু জানিয়েছেন, এরই মধ্যে আর্মি স্টেডিয়ামের ফাঁকা সূচির খোঁজ করেছেন তারা, সেই ট্র্যাকই হতে পারে বিকল্প, ‘প্রতিযোগিতার জন্য প্রাথমিকভাবে আর্মি স্টেডিয়ামকে আমরা বিবেচনায় রেখেছি। এ বছর কোন কোন সময় ওখানে ফাঁকা আছে, সেই সূচিটাও নিয়ে রেখেছি। তবে নির্বাহী কমিটির সভায় আমরা সিদ্ধান্ত নেব, কবে মিট করতে পারি, কোথায় করতে পারি।’ সেই সভা ডাকা হয়েছে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর। অক্টোবরে প্রতিযোগিতা আয়োজন সম্ভব না হলেও প্রশিক্ষণ কর্মসূচি শুরু করে দেবেন বলে জানিয়েছেন, ‘অক্টোবরে হয়তো প্রতিযোগিতা আয়োজন সম্ভব হবে না। সে ক্ষেত্রে আমরা অন্তত প্রশিক্ষণ কর্মসূচিটা শুরু করে দিতে চাই। জাতীয় দলের অ্যাথলেটদের প্রগ্রাম তো থাকবেই। জেলাপর্যায়ের প্রতিভাবান অ্যাথলেটদের প্রশিক্ষণ কর্মসূচিও আমরা শুরু করব।’ প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে সীমিত পরিসরের কোনো আয়োজন নাকি জাতীয় মিট, সেটিও ঠিক করতে হবে ফেডারেশনকে। এ বছর শুধু জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ হয়েছে, জুনিয়র মিট ও সামার অ্যাথলেটিকস হতে পারেনি করোনায়।

মন্তব্য