kalerkantho

সোমবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১০ সফর ১৪৪২

লড়াইটা জিদান-গার্দিওলারও

৬ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লড়াইটা জিদান-গার্দিওলারও

পৃথিবীর সবচেয়ে আশাবাদী মানুষটি ছিলেন উয়েফা প্রেসিডেন্ট আলেকজান্দার সেফরিন। করোনা মহামারিতে তখন প্রতিদিন হাজারের বেশি মানুষ মারা যাচ্ছিলেন ইতালি, স্পেনে। সিরি ‘এ’, লা লিগা, প্রিমিয়ার লিগের মতো টুর্নামেন্টগুলো ঢাকা পড়েছিল অনিশ্চয়তার মেঘে। তখনো সেফরিন আশাবাদী ছিলেন চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ইউরোপা লিগ নিয়ে। স্বপ্ন পূরণ হয়েছে তাঁর। নতুন ফরম্যাটে শুরু হচ্ছে চ্যাম্পিয়নস লিগ। রিয়াল মাদ্রিদ নকআউটের দ্বিতীয় লেগে ম্যানসিটির বিপক্ষে আগামীকাল খেলবে ইতিহাদে। একই দিন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস নিজেদের মাঠে আতিথ্য দেবে অলিম্পিক লিঁওকে। পরদিন ন্যু ক্যাম্পে বার্সেলোনার প্রতিপক্ষ নাপোলি আর বায়ার্ন মিউনিখ খেলবে চেলসির সঙ্গে।

প্রথম লেগে ম্যানসিটির কাছে নিজেদের মাঠে ২-১ গোলে হারায় চাপটা বেশি জিনেদিন জিদানের ওপর। পেপ গার্দিওলার বিপক্ষে আরো একটি অগ্নিপরীক্ষা তাঁর। গত ডিসেম্বরে গার্দিওলাকে নিয়ে জিদান বলেছিলেন, ‘আমার কাছে বিশ্বসেরা কোচ গার্দিওলা।’ দ্বিতীয় লেগে মুখোমুখি হওয়ার আগে জিদানেরও পিঠ চাপড়ে দিলেন গার্দিওলা, ‘টানা তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ, দুটি লা লিগা জয়েই জিদানের সামর্থ্যের ছাপ স্পষ্ট।’ বার্সেলোনায় ২২ ম্যাচে গড়ে একটি করে শিরোপা ছিল গার্দিওলার। জিদান শিরোপা জিতেছেন ১৯ ম্যাচে গড়ে একটি। একে অন্যের প্রশংসা তো এঁরা করবেনই।

ইতিহাদে ২০১৮ সালের পর চ্যাম্পিয়নস লিগে হারেনি ম্যানসিটি। গার্দিওলার ভালোই জানা, পরাজয়ের তেতো স্বাদ দিতে পারে জিদানের রিয়ালই। মর্যাদার টুর্নামেন্টটিতে কোচ হিসেবে টানা তিন শিরোপা জিতেছেন জিদান। নকআউট থেকে ছিটকে যাওয়ার রেকর্ডও নেই তাঁর। ম্যানসিটিকে হারানোর প্রেরণা জিদান নিতে পারেন উলভসের কাছ থেকেও। এবারের প্রিমিয়ার লিগে ইতিহাদে ২-০ আর নিজেদের মাঠে ৩-২ গোলে ম্যানসিটিকে হারিয়েছে তারা।

বার্সেলোনা প্রথম লেগে ১-১ গোলে ড্র করেছিল নাপোলির মাঠে। ব্যর্থতার এক মৌসুমে দ্বিতীয় লেগ নিয়ে একটা সময় আশাই ছেড়ে দিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। তবে শেষটা ভালো করতে চায় বার্সা। নাপোলিকে ৮ আগস্ট ন্যু ক্যাম্পে হারাতে মরিয়া তারা। পারবে তো বার্সা? এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা