kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

সশরীরে যুবাদের সভা

১৬ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সশরীরে যুবাদের সভা

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন বিভাগের কেউ কেউ মাঝেমধ্যে জরুরি প্রয়োজনে অফিস করেছেন। তবে গত ২২ মার্চ থেকে মূলত ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ পদ্ধতিতেই কাজ চালিয়ে নিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বিভাগীয় প্রধানদের নিয়মিত সভাও হয়েছে যাঁর যাঁর বাসা থেকে অনলাইনে। ব্যতিক্রম গতকালই প্রথম। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিসিবির প্রথম শারীরিক উপস্থিতিমূলক সভা করল গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটি। এর প্রধান খালেদ মাহমুদ বসেছিলেন জুনিয়র নির্বাচক ও বিভাগের কর্মীদের নিয়ে। এই সভায় পরবর্তী অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের প্রস্তুতি এবং আগেরটি জিতে আসা আকবর আলীদের ভবিষ্যৎ কর্মসূচি চালিয়ে নেওয়ার পথ খোঁজার চেষ্টা করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

গেম ডেভেলপমেন্টের প্রধান মাহমুদ সভা শেষে সেগুলোর সারসংক্ষেপও জানিয়েছেন। পরের যুব বিশ্বকাপের প্রস্তুতি শিবির শুরুর কোনো তারিখ অবশ্য ঘোষণা করতে পারেননি তিনি, ‘এখনই দিন-তারিখ দিয়ে দেওয়াটা বোকামি হবে। তার পরও একটি সময় মাথায় রেখে এগোতেই হয়। তাই আমরা চিন্তা করছি, আগস্টের মাঝামাঝি বা শেষের দিকে শুরু করা যায় কি না।’ প্রস্তুতি শিবিরের জন্য বিকেএসপির ইন্টারন্যাশনাল হোস্টেলের প্রাপ্যতার ওপরও পরিকল্পনা নির্ভরশীল, ‘পরের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ থেকে আমরা মাত্র ১৬ মাস দূরে আছি। অনেক পিছিয়ে গেছি আমরা। মাঠেও যেতে পারছি না, ব্যবস্থা করা যাচ্ছে না অনুশীলনেরও। আবার যুব ক্রিকেটের ওয়ানডে টুর্নামেন্টও হতে পারেনি। তাই আগস্টে বিকেএসপির ইন্টারন্যাশনাল হোস্টেলের পুরোটা পাওয়া গেলে আগে আমরা সেখানে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন করে অনুশীলন শিবির শুরু করতে পারি।’ বিশ্বজয়ী আকবরদের আগামী বছর জুন-জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে কোনো কাউন্টি দলের অধীনে ৬০ দিন রেখে অনুশীলন করানোর ভাবনার কথাও জানিয়েছেন মাহমুদ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা