kalerkantho

বুধবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৭। ৫ আগস্ট  ২০২০। ১৪ জিলহজ ১৪৪১

ইউরোপিয়ান ফুটবল

মেসির নিশ্চয়তাও পেয়েছে বার্সা

৭ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেসির নিশ্চয়তাও পেয়েছে বার্সা

লিওনেল মেসি-ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো জুটির স্বপ্ন দেখছেন কেউ কেউ! ম্যানচেস্টার সিটিতে পেপ গার্দিওলার সঙ্গে যুগলবন্দিও দেখছেন অনেকে। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে বার্সেলোনার ৪-১ গোলে জয়ের পর সব জল্পনায় জল ঢেলে দিলেন ক্লাব প্রেসিডেন্ট হোসে মারিয়া বার্তোমেউ, ‘মেসি বলেছে, বার্সেলোনাতেই ক্যারিয়ার শেষ করবে ও। তাই আরো অনেক দিন এখানে ওর খেলা উপভোগ করতে পারব আমরা।’

এদিকে সিরি ‘এ’তে বোলোনিয়ার কাছে ২-১ গোলে হেরে শিরোপা দৌড় থেকে ছিটকে গেছে ইন্টার মিলান। আর ক্যালিয়ারিকে ১-০ গোলে হারিয়ে সেরা চারে থাকাটা প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছে আতালান্তা। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে সাউদাম্পটনের মাঠে ১-০ গোলে হেরেছে ম্যানচেস্টার সিটি। কোচিং ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম লিগে বিপক্ষের মাঠে টানা তিন ম্যাচ হারলেন পেপ গার্দিওলা। অন্য ম্যাচে চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল ২-০ গোলে হারিয়েছে অ্যাস্টন ভিলাকে।

লা লিগায় পাউ তরেসের আত্মঘাতী গোলে তৃতীয় মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল বার্সেলোনা। ১৪ মিনিটে সমতা ফেরান ভিয়ারিয়ালের জেরার্দ মরেনো। তবে ২০ মিনিটেই লিওনেল মেসির পাসে কাতালানদের এগিয়ে নেন লুই সুয়ারেস। বার্সার যৌথ তৃতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা এখন তিনি। একাদশে ফেরা আন্তোয়ান গ্রিয়েজমান মেসির পাসে গোল করেন ৪৫ মিনিটে। এ মৌসুমে লা লিগায় ১৯টি অ্যাসিস্ট হয়ে গেল মেসির, যা তাঁর ক্যারিয়ার সেরা। এর আগে ২০১০-১১ ও ২০১৪-১৫ মৌসুমে ১৮টি অ্যাসিস্ট ছিল তাঁর। ৮৬ মিনিটে আনসু ফাতির গোলটি বার্সেলোনার ইতিহাসে ৯০০০তম। ‘ভিএআরে’ অফসাইডের কারণে মেসির গোল বাতিল না হলে জয়ের ব্যবধান আরো বাড়ত বার্সার।

ছন্দে ফেরা এ জয়েও রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে বার্সা পিছিয়ে ৪ পয়েন্টে। সের্হিয়ো রামোসের পেনাল্টিতে রিয়াল ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল অ্যাথলেতিক বিলবাওকে। রাউল গার্সিয়া ডি বক্সে মার্সেলোর পা মাড়িয়ে দেওয়ায় ‘ভিএআর’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। অথচ প্রায় একইভাবে গার্সিয়ার পা সের্হিয়ো রামোস মাড়িয়ে দিলেও এড়িয়ে যায় ভিএআর। এ নিয়ে খোদ বার্সা সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউ পরোক্ষে খোঁচা দিয়েছেন রিয়ালকে, ‘মনে হচ্ছে একটা দলের প্রতি পক্ষপাত করা হচ্ছে বারবার। অনেক ম্যাচ হয়েছে, যেখানে ভিএআর একই দলকে সাহায্য করেছে।’ রিয়াল কোচ জিনেদিন জিদান অবশ্য উড়িয়ে দিয়েছেন এমন অভিযোগ, ‘রেফারিংয়ের কারণে জিতছি, শুনতে শুনতে ক্লান্ত আমি।’ ইএসপিএন

মন্তব্য