kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

বিশ্বসেরাদের সঙ্গে লড়াই ফাহাদদের

৪ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : এশিয়ান জুনিয়র দাবার বাছাইটা সহজে পেরিয়ে গেলেও আজ মূল পর্বে কঠিন লড়াইয়ের মুখোমুখি হতে হচ্ছে ফাহাদ রহমান, তাহসিন তাজওয়ারদের। অনূর্ধ্ব-২০ দাবাড়ুদের এ অনলাইন আসরে ফেভারিট ইরানের মাগশুদলু পারহাম। ২৫৩২ রেটিংধারী এই দাবাড়ু ২০১৮-এর বিশ্ব যুব দাবার চ্যাম্পিয়ন। তা ছাড়া ফাহাদদের ওপেন গ্রুপে মাগশুদুল ছাড়াও গ্র্যান্ডমাস্টার আছে আরো চারজন। এর মধ্যে উজবেকিস্তানের ভোখিদভ শামসিদ্দিন সর্বোচ্চ ২৫৩৮ রেটিংধারী।

মূল পর্বে লড়াইয়ের ঝাঁজ কাল মেয়েদের গ্রুপে নোশিন আঞ্জুম ভালোই বুঝতে পেরেছে। বাছাইয়ে রানার-আপ হওয়া এই দাবাড়ু চূড়ান্ত পর্বে ৪ পয়েন্ট নিয়ে হয়েছে ১৫তম। ৯ খেলার চারটি জিতেছে নোশিন। গত বছর এশিয়ান জোনাল দাবায় রানার-আপ হয়ে ফিদে মাস্টার হওয়া নোশিনের জন্য অনলাইনে খেলাটাও অবশ্য কঠিন ছিল। নিজের ল্যাপটপ না থাকায় বন্ধুর বাসায় গিয়ে খেলতে হয়েছে তাকে। এর পরও এশিয়ান জুনিয়র দাবার এ অভিজ্ঞতা ভবিষ্যতেও কাজে লাগবে বলে নোশিনের বিশ্বাস, ‘এশিয়ার সেরা দাবাড়ুরাই অংশ নিয়েছে আসরে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা তাই অনেক বেশি ছিল। এটা আমার একটা নতুন অভিজ্ঞতা হলো। আশা করি সামনে এ ধরনের আসরে আমি আরো ভালো করব।’ নোশিনের বিভাগে ৭ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চীনের মহিলা আন্তর্জাতিক মাস্টার নিং কিয়াউ। কোনো গ্র্যান্ডমাস্টার না থাকলেও নিংকিয়াউসহ পাঁচজন আন্তর্জাতিক মাস্টার খেলেছে মেয়েদের আসরে।

দেশে গ্র্যান্ডমাস্টারদের হারিয়ে এরই মধ্যে শিরোপা জেতার অভিজ্ঞতা হয়েছে আন্তর্জাতিক মাস্টার ফাহাদ রহমানের। সাবেক যুব বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন থাকলেও আজ চূড়ান্ত পর্ব নিয়ে তাই আশাবাদী ফাহাদ, ‘আমি অবশ্যই সেরা তিনে থাকার জন্য খেলব। চ্যাম্পিয়ন হলে তো দারুণ ব্যাপার হবে।’ শীর্ষ তিন দাবাড়ুর জন্য প্রাইজ মানি আছে এ আসরে। চ্যাম্পিয়ন পাবে এক হাজার ৫০০ ডলার। বাছাইয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ২২৪৩ রেটিংধারী ফাহাদ, রানার-আপ হয়ে তাহসিনও খেলছে ব্লিটজ দাবার এ আসরে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা