kalerkantho

শনিবার । ২৭ আষাঢ় ১৪২৭। ১১ জুলাই ২০২০। ১৯ জিলকদ ১৪৪১

প্রতিবাদে উত্তাল ক্রীড়াঙ্গন

৩ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিবাদে উত্তাল ক্রীড়াঙ্গন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবাদ এখন সারা বিশ্বের। কৃষ্ণাঙ্গ বাস্কেটবল খেলোয়াড় জর্জ ফ্লয়েডের গলায় পা দিয়ে এক শ্বেতাঙ্গ পুলিশের অত্যাচার ও হত্যার বিচার চাইছেন ক্রীড়াঙ্গনের তারকারাও। বিস্ফোরক ভাষায় জানাচ্ছেন বর্ণবাদের বিপক্ষে প্রতিবাদ। মাইকেল জর্ডান, টাইগার উডস, সেরেনা উইলিয়ামস, ড্যারেন সামি, লুইস হ্যামিল্টন, কিলিয়ান এমবাপ্পেদের মতো তারকারা সোচ্চার শুরু থেকে। ফিফা, লিভারপুল, বার্সেলোনা, যুক্তরাষ্ট্রের মহিলা ফুটবল দল আর ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ডও মানতে পারছে না এমন বর্ণবৈষম্য। এদিকে বক্সিং কিংবদন্তি ফ্লয়েড ‘মানি’ মেওয়েদার প্রস্তাব দিয়েছেন ফ্লয়েডের শেষকৃত্যের সব খরচ বহন করার। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম নিশ্চিত করেছে মেওয়েদারের এই সাহায্য গ্রহণে রাজি হয়েছে ফ্লয়েডের পরিবার। মানে বর্ণবাদ একবিন্দুতে মিলিয়ে দিল দুই ফ্লয়েডকে।

‘ব্ল্যাক লাইভ মেটার’ সমর্থন করে গলফ কিংবদন্তি টাইগার উডসের টুইট, ‘যুক্তরাষ্ট্রের আইনের প্রতি সব সময় শ্রদ্ধাশীল। কখন, কিভাবে কঠোর হতে হয় এ নিয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় ভালোভাবে। কিন্তু এই ট্র্যাজেডি সীমা ছাড়িয়ে গেছে।’

সোমবার অনুশীলনে মাঝখানের গোল বৃত্তে হাঁটু গেড়ে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন লিভারপুল খেলোয়াড়রা। যুক্তরাষ্ট্রের নারী ফুটবল দলও গতকাল টুইটারে লিখেছে, ‘এক জাতি, এক দল। আমরা বর্ণবাদের বিপক্ষে।’ ইংলিশ ক্রিকেট বোর্ড কাঁধে কাঁধ মেলানো জোফ্রা আর্চার, আদিল রশিদ ও জস বাটলারের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করে বার্তা দিয়েছে বর্ণবাদের বিপক্ষে।

যুক্তরাষ্ট্রের বাস্কেটবল কিংবদন্তি মাইকেল জর্ডান কোনোভাবে মানতে পারছেন না কালোদের ওপর এমন অন্যায়, ‘আমি দেখছি। সবার যন্ত্রণা, রাগ, হতাশা বুঝতে পারছি। যাঁরা এই বর্ণবাদ আর হিংসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছেন, আমি সঙ্গে আছি তাঁদের। যথেষ্ট হয়েছে।’

ফর্মুলা ওয়ানে সব সময় শ্বেতাঙ্গদেরই দাপট। এ জন্যই কিনা এই অঙ্গনের তেমন কারো প্রতিবাদ চোখে পড়ছে না লুইস হ্যামিল্টনের।  তা নিয়ে ক্ষোভ এই রেসারের। ‘ইউনিভার্সাল বস’ ক্রিস গেইল ক্রিকেটেও দেখেছিলেন বর্ণবাদের প্রভাব। বিশেষ করে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে কৃষ্ণাঙ্গরা এর শিকার। এবার গেইলের সুরে ক্যারিবিয়ান সাবেক অধিনায়ক ড্যারেন সামির আহ্বান, ‘এখন চুপ থাকার সময় নয়। অনেক দিন ধরেই কালো মানুষরা এসব সহ্য করছে। জর্জ ফ্লয়েডের ঘটনায় আপনারা চুপ থাকলে খুবই হতাশ হব আমি।’ সিএনএন

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা