kalerkantho

শনিবার । ২০ আষাঢ় ১৪২৭। ৪ জুলাই ২০২০। ১২ জিলকদ  ১৪৪১

নতুন আইনে ক্ষতিই বেশি!

৩১ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন আইনে ক্ষতিই বেশি!

গতকাল অনুশীলনে

মাঠে দর্শক নেই। গোলের পর উচ্ছ্বাসে ভাসছেন না ফুটবলাররা। হাতও মেলাচ্ছেন না কারো সঙ্গে। করোনা আসলে বদলে দিয়েছে ফুটবলই। সবচেয়ে বড় বদল তিনজনের বদলে একই ম্যাচে পাঁচ বদলি খেলানোর ফিফার আইন। অনেক দলের জন্য এটা সুবিধার। কারণ এতে চোট প্রবণতা কমবে। কিন্তু বার্সেলোনার কোচ কিকে সেতিয়েনের কাছে এটা সমস্যার। ম্যাচের শেষ দিকে প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হয়ে যেভাবে ম্যাচের ভাগ্য বদলে দিতে পারতেন লিওনেল মেসি, লুই সুয়ারেসরা—এবার সেটা পারবেন না বলে শঙ্কা সেতিয়েনের, ‘পাঁচ বদলির এই নিয়মে মনে হয় ক্ষতিই হবে আমাদের। ম্যাচের শেষ দিকে প্রতিপক্ষ ক্লান্ত খেলোয়াড়দের তুলে নিতে পারবে। নতুন খেলোয়াড়রা ফিট থাকবে স্বাভাবিকভাবে। আমরা অনেক ম্যাচ ঘুরে দাঁড়িয়েছি শেষ কয়েক মিনিটে। আর এখন সেই সময়ে প্রতিপক্ষ সতেজ থাকবে আরো বেশি।’

লাস পালমাসের এক কোচিং স্কুলের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেছেন সেতিয়েন। সেখানে দীর্ঘদিন পর খেলা মাঠে গড়ানোয় ফুটবলারদের চোটের শঙ্কা জানিয়েছেন তিনি, ‘অল্প সময়ে অনেক ম্যাচ খেলতে হবে এখন, যা খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে প্রভাব ফেলবে। আশা করব চোটের মাত্রাটা যেন সীমিত আকারে থাকে। যদিও অনেক বেশি চোটের শঙ্কা আছে, যেমনটা হচ্ছে জার্মানিতে। বলতে গেলে গত দুই মাস ঘরের সোফার ওপরেই বসে আছি, খেলার মধ্যে নেই কেউ।’

বিরতির পর আগামী ১১ জুন আবারও ফিরছে লা লিগা। সেভিয়া-রিয়াল বেতিস ম্যাচ দিয়ে লিগ শুরুর সূচিও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সব কিছু ঠিকঠাক এগোলে জুলাইয়েই শেষ হওয়ার কথা লিগ। ২ পয়েন্টে এগিয়ে থাকায় সেতিয়েন প্রত্যয় জানালেন লিগ জয়েরও, ‘সব দল শূন্য থেকে শুরু করবে। লিগের বাকি ১১টি ম্যাচ আর আমাদের সবগুলো জেতার চেষ্টা করতে হবে। তাহলেই জিতব শিরোপা।’ মার্কা

মন্তব্য