kalerkantho

রবিবার । ২২ চৈত্র ১৪২৬। ৫ এপ্রিল ২০২০। ১০ শাবান ১৪৪১

বড় হার মেয়েদের

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বড় হার মেয়েদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক : নিজেদের ছাড়িয়ে গেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে সেটি সাফল্যে নয়, ব্যর্থতায়। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে মোটামুটি লড়লেও গতকাল ক্যানবেরার মানুকা ওভালে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার সামনে গড়তে পারল না কোনো প্রতিরোধই। তাই ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে হেরেছে ৮৬ রানের বিশাল ব্যবধানেই। যা গড়ে দিয়েছে নিজেদের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারের রেকর্ডও। এর আগে ২০১৪-র বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড ও ভারতের কাছে ৭৯ রানে হারের রেকর্ডকে এবার পেছনে ফেলল তারা।

সালমা খাতুনদের বিপক্ষে কাল হয়েছে আরো কিছু রেকর্ডও। টস জিতে ব্যাটিং নেওয়ার পর দুই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার অ্যালিসা হিলি ও বেথ মুনির পার্টনারশিপই স্বাগতিকদের এমন জায়গায় পৌঁছে দেয় যে বাংলাদেশের জন্য ম্যাচ সেখানেই শেষ একরকম। অস্ট্রেলিয়া নির্ধারিত ২০ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে তোলে ১৮৯ রান। যা বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। জিততে হলে রান তাড়ায় নিজেদের নতুন রেকর্ড গড়তে হতো সালমাদের। তবে সেরকম কিছুর সম্ভাবনাও তৈরি করতে না পারা বাংলাদেশ থেমে যায় ১০৩ রানে।

দুই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার দলকে দিয়ে যান ১৫১ রানের সূচনা। এটি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে যেকোনো উইকেটে সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ তো বটেই, বাংলাদেশের বিপক্ষে যেকোনো উইকেটের সর্বোচ্চ। মেয়েদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বিধ্বংসী ব্যাটার হিসেবে পরিচিত হিলি চালিয়েছেন ব্যাটিং তাণ্ডব। ৫৩ বলে ৮৩ রানের ইনিংস খেলা হিলিকে ফিরিয়ে বোলিংয়ে দলকে একমাত্র সাফল্য এনে দেন সালমা। মুনি অবশ্য ৫৮ বলে ৮১ রান করে অপরাজিত ছিলেন। অবশ্য হিলি ও মুনির ব্যাটিং সাফল্যে সালমাদের এলোমেলো বোলিং এবং বাজে ফিল্ডিংয়েরও যোগ আছে। তাই রান তাড়ায়ও প্রভাব ফেলেছে অস্ট্রেলিয়ার বিশাল সংগ্রহ। সর্বোচ্চ ৩৬ রান এসেছে ফারজানা হকের ব্যাট থেকে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা