kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৪ চৈত্র ১৪২৬। ৭ এপ্রিল ২০২০। ১২ শাবান ১৪৪১

মুখোমুখি প্রতিদিন

ওপরেই আমি ভালো খেলি

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ওপরেই আমি ভালো খেলি

জাতীয় দল এবং ক্লাবে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছেন মোহাম্মদ ইব্রাহিম। পরশু ব্রাদার্সের বিপক্ষে বসুন্ধরা কিংসের ৩-২ গোলের জয়ে জোড়া গোল তাঁর। কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে নিজের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স নিয়েই কথা বলেছেন তিনি

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : অভিনন্দন, বসুন্ধরা কিংসের হয়ে প্রথম জোড়া গোল করলেন, প্রিমিয়ার লিগেই প্রথম কি?

মোহাম্মদ ইব্রাহিম : না, এর আগে চট্টগ্রাম আবাহনীতে থাকতে দুই গোল করেছিলাম বারিধারার বিপক্ষে। ময়মনসিংহে হয়েছিল সে ম্যাচটা।

প্রশ্ন : কোন পারফরম্যান্সটাকে এগিয়ে রাখবেন?

ইব্রাহিম : অবশ্যই এবারেরটাকে। চট্টগ্রাম আবাহনী সেবার শিরোপার জন্য লড়েছিল ঠিক, কিন্তু সেই অর্থে শিরোপার দল তো ছিল না। সেখানে বসুন্ধরা চ্যাম্পিয়ন দল। এই দলের হয়ে ভালো কিছু করতে পারাটা অবশ্যই বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্ন : এমন একটা পারফরম্যান্স আপনার কাছ থেকে আশা করা হচ্ছিল অবশ্য আরো আগে থেকেই...

ইব্রাহিম : আসলে গত তিন ম্যাচে আমি কিন্তু তিন পজিশনে খেলেছি, লেফট ব্যাক, মিডফিল্ড আর পরশু খেললাম আমার সহজাত পজিশন উইংয়ে। এই পজিশনে থাকলে গোল করতে পারি, করাতে পারি। তো আমি একটা সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম। কোচ যদি আমাকে ওপরে খেলান তাহলে আমি যে তাঁকে বোঝাতে পারি লেফট ব্যাক পজিশন থেকে আমি উইংয়েই ভালো। সে হিসেবেও বলেন এই পারফরম্যান্সটা আমার জন্য বড় পাওয়া।

প্রশ্ন : তবে এই মুহূর্তে দলে স্ট্রাইকার সংকট আছে। মতিন ইনজুরিতে, জালাল কদুহ নেই, সে কারণেই তো সুযোগটা পেলেন...

ইব্রাহিম : হ্যাঁ, সে জন্যই হয়তো পেয়েছি। তবে কোচ এটা তো বুঝলেন প্রয়োজনে আমাকে এভাবে কাজে লাগানো যায়। তাতে সামনেও আমি এই সুযোগটা পাব আশা করি।

প্রশ্ন : তো দলের এই ইনজুরিজর্জর অবস্থায় আপনাদের জন্য কাজটা কতটা কঠিন হচ্ছে?

ইব্রাহিম : একদিক দিয়ে এটা আসলে অন্যদের জন্য সুযোগ। আর আমাদের বসুন্ধরার বেঞ্চটাও যথেষ্ট শক্তিশালী। তাই আমরা আসলে ভালোভাবেই এই সমস্যাটা পেরিয়ে যেতে পারব বলে আশা করি।

প্রশ্ন : হার্নান বার্কোস তো অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন, তাঁকে কেমন দেখছেন?

ইব্রাহিম : কোনো সন্দেহ নেই, ও বিশ্বমানের। বসুন্ধরার জার্সিতে আমরাও ওর অভিষেকের অপেক্ষায় আছি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা