kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

দক্ষিণাঞ্চলের টানা তিন

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : দক্ষিণাঞ্চলের শিরোপার পথ প্রথম ইনিংসেই খুলে রেখেছিলেন অধিনায়ক আব্দুর রাজ্জাক। ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলের ৭ উইকেট একাই তুলে নেওয়া এই বাঁহাতি স্পিনার অবশ্য দ্বিতীয় ইনিংসে কুঁচকির চোটে তিন ওভারের বেশি বোলিং করতে পারলেন না। তবে বোলিং আক্রমণে অধিনায়কের অনুপস্থিতি একদম টেরই পেতে দিলেন না দুই পেসার শফিউল ইসলাম-ফরহাদ রেজার সঙ্গে অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসানও। ৩৫৪ রানের লক্ষ্যে নামা পূর্বাঞ্চলও গুটিয়ে গেল ২৪৮ রানেই। তাই পাঁচ দিনের ফাইনাল চার দিনেই ১০৫ রানে জিতে নেওয়া দক্ষিণাঞ্চল টানা তৃতীয়বারের মতো ঘরে তুলল বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) শিরোপা।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়নরা ম্যাচের চতুর্থ দিন শুরু করে দ্বিতীয় ইনিংসে ৮ উইকেটে ১২৫ রান নিয়ে। আর মাত্র ১৫ রান যোগ করে অল আউটও হয়ে যায়। অবশ্য ততক্ষণে ৪১ রান নিয়ে দিন শুরু করা মেহেদীর ফিফটি হয়ে গেছে। পাঁচ বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় ৮৪ বলে ৫৩ রান করে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তিনি।

যদিও দক্ষিণাঞ্চলকে দ্বিতীয় ইনিংসে ধসিয়ে দিয়েও স্বস্তিতে থাকার উপায় ছিল না পূর্বাঞ্চলের। প্রথম ইনিংসে ৪৮৬ রানের বিশাল সংগ্রহের কারণে এত অল্পতে গুটিয়ে গিয়েও দক্ষিণাঞ্চল এগিয়ে থাকে ৩৫৩ রানে। যা জয়ের পথও খুলে রাখে তাদের জন্য। বড় লক্ষ্য তাড়ায় শুরুতেই পূর্বাঞ্চলের (প্রথম ইনিংস ২৪৮ রান) বিপর্যয় শিরোপার পথে আরো এগিয়ে দেয় তাদের প্রতিপক্ষকে। ৩৩ রানেই হারিয়ে বসে ৩ উইকেট। সবার আগে বিদায় নেন ওপেনার মোহাম্মদ আশরাফুল (৫)। অন্য ওপেনার পিনাক ঘোষ (১৬) ও ইমরুল কায়েসকে (৩) তুলে নেন শফিউল। সেখান থেকে আফিফ হোসেনকে (৩১) নিয়ে মাহমুদুল হাসানের ৮৫ রানের পার্টনারশিপে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টাও থামান অফস্পিনার মেহেদী। আফিফকে ফেলেন স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে। এর পর থেকে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারাতে থাকা পূর্বাঞ্চলের হার একরকম নিশ্চিত হয়ে যায় ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে মাহমুদুলের (৮১) বিদায়ে। তাঁকে উইকেটের পেছনে ক্যাচ বানানো ফরহাদ (২/৫১) পরে ফেরান তাসজিদ হাসানকেও (১৭)। শফিউল ইসলাম নেন ৫৬ রানে ৩ উইকেট। ৬৬ রান খরচায় ৩ শিকার অফস্পিনার মেহেদীরও। প্রথম ইনিংসে অপরাজিত ১০৩ রানের ইনিংসের সঙ্গে শেষ ইনিংসের দারুণ বোলিং যোগ হওয়ায় ম্যাচসেরা হয়েছেন অবশ্য ফরহাদই। টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় এবং ব্যাটসম্যানও দক্ষিণাঞ্চলেরই, এনামুল হক। সেরা বোলারও তাই, অধিনায়ক রাজ্জাক।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা