kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৯ চৈত্র ১৪২৬। ২ এপ্রিল ২০২০। ৭ শাবান ১৪৪১

মুশফিককে পাকিস্তানে চায় বিসিবি

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুশফিককে পাকিস্তানে চায় বিসিবি

ছবি : মীর ফরিদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ক্যারিয়ারের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরি করলেন মাত্রই। হয়েছেন ম্যান অব দ্য ম্যাচ; জিতেছে দল। এমন আনন্দময় সময়ে কঠিন একটি সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে মুশফিকুর রহিমকে। তাঁর পাকিস্তানে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন খোদ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান।

পাকিস্তান সফরে যাওয়া, না যাওয়া নিয়ে ক্রিকেটারদের সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ দিয়েছিল বোর্ড। নিরাপত্তাহীনতার শঙ্কায় পরিবার আতঙ্কে থাকবে আর ওই অবস্থায় ক্রিকেট খেলা সম্ভব না—তা জানিয়ে পাকিস্তান না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মুশফিক। দুই দফা পাকিস্তান সফরের পর এপ্রিলে একটি করে টেস্ট-ওয়ানডে খেলতে আবার সে দেশে যাবে বাংলাদেশ। এবার মুশফিকের যাওয়া উচিত বলে কড়া বার্তা কাল দেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান, ‘আশা করছি মুশফিক যাবে। প্রত্যেক চুক্তিভুক্ত খেলোয়াড়ের যাওয়া উচিত। দেশের হয়ে খেলা হলে খেলতে হবে। এটা বলার কিছু নাই।’ আগের দুই সফরের সময়ও তো মুশফিকুর চুক্তিভুক্ত খেলোয়াড় ছিলেন। তখন না যাওয়ার সুযোগটা তাহলে কেন দিয়েছিল বোর্ড?

পরিবারের শঙ্কা নিয়েও কথা বলেছেন নাজমুল। মুশফিকের ভায়রা মাহমুদ উল্লাহর উদাহরণ টেনে আনেন বোর্ড সভাপতি, ‘দেশের কথাও চিন্তা করতে হবে, সব সময় নিজের কথা চিন্তা করলে হবে না। প্রত্যেকের পরিবার গুরুত্বপূর্ণ; কিন্তু দেশটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এটা মাথায় থাকতে হবে। আর মুশফিকের বাড়ির লোকও তো খেলে এসেছে পাকিস্তানে। আমি বলতে চাচ্ছি, রিয়াদের বেলায় কিছু হবে না, ওর বেলায় খালি পরিবার কান্নাকাটি করবে নাকি? এ রকম আমি বিশ্বাস করি না। কাজেই রিয়াদের কাছ থেকে শুনতে পারে ও। মন বদলাতে পারে।’

পাকিস্তানের সে সফরে মাশরাফি বিন মর্তুজা কি ওয়ানডে খেলতে যাবেন? এ ব্যাপারে আগামী মাসের বোর্ড সভায় অধিনায়কত্বের ফায়সালা হবে বলে জানান আবার, ‘অধিনায়ক নিয়ে আগামী বোর্ড সভায় সিদ্ধান্ত হবে। মাশরাফি খেলবে কি খেলবে না, অধিনায়ক থাকবে কি থাকবে না—ওই মিটিংয়ের আগে বলতে পারছি না।’

মন্তব্য