kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

ঝড় মাথায় বার্নাব্যুতে গার্দিওলা

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঝড় মাথায় বার্নাব্যুতে গার্দিওলা

ম্যানচেস্টার সিটি যেন এক ঝড় পার হচ্ছে। মৌসুমটা কাটছে তাদের লিভারপুলের বজ হাসি দেখে দেখে। এর মধ্যেই ঘর এলোমেলো তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞায়। এমন ঝড়ের ভেতর আজ রাতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে খেলতে নামতে হচ্ছে তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগ শেষ ষোলোর প্রথম লেগে। যে চ্যাম্পিয়নস লিগ এখনো মরীচিকা হয়ে আছে তাদের কাছে।

নিষেধাজ্ঞা মাথায় নিয়ে এবার এ টুর্নামেন্ট এবং আজকের ম্যাচও অন্যদিক দিয়ে দেখতে গেলে পেপ গার্দিওলার শেষ অবলম্বন। বার্নাব্যুতে আজ কিছু করা গেলে অধরা ট্রফি ছোঁয়ার স্বপ্নটা বেঁচে থাকে। দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রিমিয়ার লিগে টানা দুই মৌসুম দাপটের পর এই চ্যাম্পিয়নস লিগ এমনতিইে অপূর্ণতা হয়ে আছে গার্দিওলার জন্য। বার্সেলোনা ছাড়ার পর থেকেই তো তা। এবার তা মেটাতে পারলে দুই মৌসুম নিষেধাজ্ঞার কষ্টটাও নিশ্চিত কমে যাবে সিটিজেনদের। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ কি তা হতে দেবে, আরো স্পষ্ট করে বলতে গেলে জিনেদিন জিদান। ২০১৩ থেকে ২০১৮ এই পাঁচ মৌসুমে রিয়ালের যে চার শিরোপা, তার তিনটিই তো তাঁর হাত ধরে। এক মৌসুম বিরতি নিয়ে ফেরার আবারও যে এই ইউরোপীয় শিরোপার ঘ্রাণ পাচ্ছেন না জিজু, কে বলতে পারে! লা লিগায়ও এখনো শিরোপা লড়াইয়ে আছে তাঁর দল। যদিও পারফরম্যান্সে বড্ড ওঠানামা। শেষ ৫ ম্যাচে ২ জয়, ২ হার, এক ড্র। শেষ ম্যাচটাতেই লেভান্তের কাছে হার। তার আগের ম্যাচে ঘরের মাঠে ড্র সেল্তা ভিগোর সঙ্গে। ঘরের মাঠে লস ব্ল্যাংকোদের চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ৪৯ ম্যাচে হার মাত্র চারটিতে, তবে শেষ ৯ ম্যাচে তিনটিতে শুধু জয়। এই মৌসুমেই গ্রুপ পর্বে পয়েন্ট খুইয়েছে তারা পিএসজি ও ক্লাব ব্রুজের কাছে। তবে ম্যানসিটির বিপক্ষে রেকর্ড জিদানকে অনুপ্রেরণাই দেবে। চারবারের মুখোমুখি দেখায় হার নেই একটিও, জয় ঘরের মাঠের দুই ম্যাচেই।

জুভেন্টাসও মুখোমুখি চার ম্যাচে কখনোই হারেনি লিওঁর কাছে। আজ ঘরের মাঠে রেকর্ডটা বদলাতে হলে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো নামের এক গোল মেশিনকে আটকাতেই হবে ফরাসি ক্লাবটিকে। রোনালদোর এই ৩৫- এও যে থামার লক্ষণ নেই। সিরি ‘এ’-র শেষ ম্যাচেই ইতালিয়ান লিগে টানা ১১ ম্যাচ গোল করার রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন পর্তুগিজ তারকা। জুভেন্টাসও দারুণ ফর্মে এই মৌসুমে। গ্রুপ পর্বে ছয় ম্যাচের পাঁচটিই জিতেছে তারা। গোলডটকম

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা