kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

টানা ড্রয়ের পর হার

টানা দুই ড্রয়ের পর গতকাল মোহামেডানের কাছে ১-২ গোলে হেরেছে শেখ রাসেল। অন্যদিকে বাংলাদেশ পুলিশ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে পেয়েছে জয়ের দেখা। প্রিমিয়ারে নবাগত দলটি ২-১ গোলে হারিয়েছে উত্তর বারিধারাকে।

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



টানা ড্রয়ের পর হার

ক্রীড়া প্রতিবেদক : টানা দুই ড্রয়ের পর গতকাল মোহামেডানের কাছে ১-২ গোলে হেরেছে শেখ রাসেল। অন্যদিকে বাংলাদেশ পুলিশ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে পেয়েছে জয়ের দেখা। প্রিমিয়ারে নবাগত দলটি ২-১ গোলে হারিয়েছে উত্তর বারিধারাকে। সুবাদে তিন ম্যাচে তাদের সংগ্রহ বেড়ে হয়েছে ৪ পয়েন্ট।

শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের হোম ভেন্যু সিলেটে গতকাল মোহামেডানের বিপক্ষে চাপে পড়ে শুরুতেই। ৬ মিনিটের মুভটি সেরকম কোনো আক্রমণ নয়। স্রেফ রক্ষণভাগের কারণে গোল খেয়ে বসে তারা। সুলেমানে দিয়াবাতের পায়ে পড়ে এক লং বল। তাঁর সঙ্গে ছিলেন এক ডিফেন্ডারও, কিন্তু তিনি মালির এই ফরোয়ার্ডকে আটকাতে পারেননি। বল নিয়ে বক্সে ঢুকে গোলরক্ষক রানাকে কোনো সুযোগ না দিয়ে তিনি এগিয়ে নেন মোহামেডানকে। লিড ধরে রাখতে গিয়ে সাদা-কালোরা খানিকটা রক্ষণাত্মক হয়ে পড়লে শেখ রাসেল অল-আউট খেলতে শুরু করে। তার সুফল মেলে ৪২ মিনিটে, তবে খুব বাজে ফ্রি-কিক থেকে পায় ম্যাচে ফেরার গোল। ওই নিরীহ ফ্রি-কিকটি ঠিকঠাক ক্লিয়ার করতে পারেনি মোহামেডানের রক্ষণভাগ, এই সুযোগে পেড্রো অলিভিয়েরার ভলিতে খেলায় ফেরে শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্র। এরপর আধিপত্য বজায় রেখে কয়েকটি সুযোগ তৈরি করেও দ্বিতীয় গোলটি আর পায়নি। উল্টো ৮৬ মিনিটে সাদা-কালোদের জয়সূচক গোলটি উপহার দিয়েছে রাসেলের রক্ষণভাগ। সুলেমানের ডান দিক থেকে পাঠানো ক্রসটি সহজেই ক্লিয়ার করতে পারত। সেই ব্যর্থতার মূল্য তাদের দিতে  হয়েছে শাহেদ হোসেনের গোলে।

আগের দুই ম্যাচ ছিল পুলিশের জন্য বড় কঠিন। প্রথম ম্যাচে গত লিগের রানার্স-আপ আবাহনীর সঙ্গে হারলেও পরের ম্যাচে চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে ড্র করে নবাগতরা বুঝিয়ে দিয়েছিল তাদের শক্তি। গতকাল উত্তর বারিধারার বিপক্ষে সেই শক্তির পূর্ণ প্রকাশ ঘটেছে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে। বিশেষ করে তাদের বিদেশি ফুটবলারদের গড়পড়তা মান অন্যদের চেয়ে ভালো। দুই বিদেশির ঝলকে তারা বিরতির আগেই এগিয়ে যায় ২-০ গোলে। ৩১ মিনিটে কর্নার কিকে সিডনি রিভেইরার লক্ষ্যভেদী হেডে লিড নেয় তারা। মিনিট পাঁচেক বাদে বুলগেরিয়ান মিডফিল্ডার অ্যান্থোনিও লাসকভের দুর্দান্ত এক ফ্রি-কিকে ব্যবধানে বেড়ে হয় ২-০। ৬ মিনিটেই যেন তারা ম্যাচ পকেটে পুরে নিয়েছে। তবে দ্বিতীয়ার্ধ শুরু হতেই ফোঁস করে ওঠে বারিধারা। ৪৬ মিনিটে সুমন রেজার গোলে ব্যবধান কমিয়ে তারা ম্যাচে ফেরার গোল খোঁজ করলেও শেষ পর্যন্ত পায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা