kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৬ চৈত্র ১৪২৬। ৯ এপ্রিল ২০২০। ১৪ শাবান ১৪৪১

মুখোমুখি প্রতিদিন

ফুটবলের ভালো-মন্দ নিয়ে কথা বলতে পারব না!

বাফুফের সাবেক টেকনিক্যাল ডিরেক্টর বি এ জুবায়ের নিপু কিছুদিন আগে একটি টেলিভিশন টক শোতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সমালোচনা করায় তাঁকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছে ফেডারেশন। এ প্রসঙ্গেই কালের কণ্ঠ স্পোর্টসের মুখোমুখি হয়ে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করলেন বসুন্ধরা কিংসে টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের দায়িত্ব পালন করা এ কোচ।

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফুটবলের ভালো-মন্দ নিয়ে কথা বলতে পারব না!

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : সম্প্রতি একটি টিভি টক শোতে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সমালোচনা করায় আপনাকে জরিমানা করা হয়েছে। এ ব্যপারে আপনার অবস্থান কী?

বি এ জুবায়ের নিপু : ১০ বছরের বেশি সময় আমি বাফুফের সঙ্গে জড়িত ছিলাম। কাছ থেকে অনেক কিছু দেখেছি। তখন কোচদের যে বেতন ছিল, এখনো তা-ই আছে। তিন মাস ধরে তারা সেই বেতনও পাচ্ছিল না, সেটাই আমি টক শোতে বলেছি। বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপে আরো ভালো মানের দল আনা যেত বলে নিজের মতামত প্রকাশ করেছি। এটাই আমার অন্যায়। আমি কিন্তু ওই টক শোতে বাফুফের গঠনমূলক সমালোচনা করেছি। সালাউদ্দিন ভাই (কাজী সালাউদ্দিন) যা যা ভালো করেছেন, যেমন লিগ করা, মেয়েদের ফুটবলে আন্তর্জাতিক সাফল্য আনা সেসব উল্লেখ করেই যে যে জায়গায় ঘাটতি দেখেছি তা বলেছি।

প্রশ্ন : আপনি তো কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাবও দিয়েছেন?

জুবায়ের : হ্যাঁ। আমি টেকনিক্যাল ডিরেক্টর থাকা অবস্থায় আমার কোচদের নিয়ে একবারের জন্যও সভাপতির সঙ্গে বসতে পারিনি। কী করলে ভালো হবে, কোথায় সমস্যা আছে, কোনো দিন কিছু উনি শোনেননি। এসব নিয়েই আমি বলেছিলাম। কিন্তু আমাকে কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়ে বলা হয়েছে এসব মিথ্যা কথা। কিন্তু আমি যে মিথ্যা বলিনি, কোচরাই তার প্রমাণ দেবেন। যা হোক আমি নোটিশের জবাব দেওয়ার পর সেটাও তাদের মনঃপূত হয়নি, এখন আমাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সেটা পরিশোধ না করলে আমার বিরুদ্ধে যেকোনো রকম ব্যবস্থা নেবে। তার মানে কি ফুটবলের ভালো-মন্দ নিয়ে আমরা কথাও বলতে পারব না!

প্রশ্ন : আপনাকে তো নির্দিষ্ট ধারায় জরিমানা করা হয়েছে...

জুবায়ের : ধারা হলো ফুটবলের ক্ষতি হয় এমন বক্তব্য দেওয়া যাবে না। এখন ফুটবলের ভালোর জন্য আমার গঠনমূলক সমালোচনাকে উনারা ক্ষতিকর মনে করলে কী করার আছে?

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা