kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৯ চৈত্র ১৪২৬। ২ এপ্রিল ২০২০। ৭ শাবান ১৪৪১

মুখোমুখি প্রতিদিন

এই কথাটা ভালো লাগল না

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এই কথাটা ভালো লাগল না

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ টেস্টে ৩৫ উইকেট তাঁর। ক্যারিয়ারের ইনিংস ও ম্যাচসেরা বোলিং এই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে। সামনে যখন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট, তখন তাইজুল ইসলামের বড় ভূমিকাই থাকার কথা। কিন্তু এ নিয়ে করা প্রশ্নে বাঁহাতি স্পিনারের ক্রোধ। তবে টেস্টটি জেতা যে বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য প্রয়োজন, সেটি মেনে নিয়েছেন তিনি

প্রশ্ন : দেশের বাইরে বেশ কয়েকটি টেস্ট খেলল বাংলাদেশ। যেখানে পারফরম্যান্স ভালো ছিল না। এবার দেশে টেস্ট হচ্ছে। একটু স্বস্তির জায়গায় এসেছেন বলে মনে হচ্ছে কি?

তাইজুল ইসলাম : আসলে দেশে যখন খেলা হয়, নিজের কাছে একটু অন্য রকম লাগে। ভালো করব বা ভালো করার সেই অনুভূতিটা থাকে। আমার মনে হয় এবারও ভালো করাটা স্বাভাবিক।

প্রশ্ন : জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টের সময় আপনার নামটাই বেশি আলোচিত হয়। তাতে কেমন লাগে?

তাইজুল : এই কথাটা ভালো লাগল না। কারণ শুধু জিম্বাবুয়ের সঙ্গেই যে আমি উইকেট পেয়েছি, তা তো না। যাদের সঙ্গেই খেলেন, জায়গায় বল না করলে ভালো করা সম্ভব না। তা ছাড়া জিম্বাবুয়ে একেবারে খারাপ দল নয়। ভালো জায়গায় বল না করলে তাই মার খেতে হবে। আর যখন ভালো জায়গায় বল করব, উইকেটের সুযোগ আসবে। সেটা দেশের জন্য ভালো।

প্রশ্ন : ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে দুই টেস্ট সিরিজের এক ম্যাচে পরাজয়ের দুর্ঘটনা ছিল। সেটা আপনাদের কতটা মনে আছে?

তাইজুল : না, আমি দুর্ঘটনা বলব না। দুর্ঘটনা অন্য জিনিস। সে ম্যাচে আমরা খারাপ খেলার কারণে হেরেছি। পরের ম্যাচে ভালো খেলেছি; তাই জিতেছি। এখানে দুর্ঘটনার কিছু নাই। আসলে ক্রিকেট ভালো খেলতে হবে। ভালো না খেললে হারাটাই স্বাভাবিক।

প্রশ্ন : ভারত-পাকিস্তানের সঙ্গে টেস্ট খেলা আর জিম্বাবুয়ের সঙ্গে টেস্ট খেলার পার্থক্য হলো, এখানে বাংলাদেশকে জিততেই হবে। আপনার কি মনে হয়, এবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জেতা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য খুব প্রয়োজন?

তাইজুল : অবশ্যই জেতা প্রয়োজন। সেটা জিম্বাবুয়ে হোক কিংবা অন্য যেকোনো দলের বিপক্ষেই হোক না কেন! জিতলে আমাদের আত্মবিশ্বাসের মাত্রা আরো ওপরে যাবে। আমাদের দলের জন্য সেটি খুব ভালো হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা