kalerkantho

বুধবার । ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

ড্র শেখ রাসেলের হেরেছে জামাল

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ড্র শেখ রাসেলের হেরেছে জামাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সিলেটে নিজেদের হোম ভেন্যুতে এগিয়ে গিয়েও ব্রাদার্সের সঙ্গে লিগের প্রথম ম্যাচ ড্র করেছে শেখ রাসেল। এদিকে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে পেরে ওঠেনি শেখ জামাল। মারুফুল হকের দলের কাছে হেরেছে তারা ২-০ গোলে।

ঢাকায় লড়াইটা হয়ে দাঁড়িয়েছিল ঘরোয়া ফুটবলের অন্যতম সফল দুই কোচ মারুফুল হক ও শফিকুল ইসলামের। গতবার আরামবাগের দায়িত্বে থাকা মারুফ এবার বড় লক্ষ্য নিয়ে দায়িত্ব নিয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনীর। শুরুটা হয়েছে তাঁর প্রত্যাশামতোই। ম্যাচের শুরু থেকে শফিকুল ইসলাম মানিকের দলের ওপর আধিপত্য নিয়ে খেলেছে তারা। ডিফেন্স লাইন প্রায় মাঝমাঠে উঠিয়ে খেলা তাদের আক্রমণাত্মক ফুটবলে গোল মিলেছে অবশ্য দ্বিতীয়ার্ধে গিয়ে। দারুণ এক বিল্ডআপে রাকিব হোসেনের থ্রু পাসে বক্সের ভেতর বল পেয়ে বুদ্ধিদীপ্ত চিপে তা জালে জড়িয়েছেন ম্যাথু চিনেডু। আরামবাগ থেকেই এই নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকারকে সঙ্গী করেছেন মারুফ। এই গোলে এগিয়ে যাওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যেই আরেক বিদেশি ফরোয়ার্ড চার্লস দিদিয়েরের গোলে ব্যবধান বাড়ায় চট্টগ্রামের দলটি। এবার চিনেডুর কাটব্যাকেই বক্সের ভেতর থেকে লক্ষ্যভেদ করেন আইভরিয়ান মিডফিল্ডার।

ব্রাদার্সের সঙ্গে লিগের প্রথম ম্যাচ ড্র করেছে শেখ রাসেল। এদিকে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে পেরে ওঠেনি শেখ জামাল। মারুফুল হকের দলের কাছে হেরেছে তারা ২-০ গোলে।

সিলেটে ম্যাচের শুরুতেই গোল পেয়ে গিয়েছিল শেখ রাসেল। বাঁ-দিক থেকে উঠে আসা ইয়ামিন মুন্নার ক্রসে অসাধারণ এক হেড নিয়ে দলকে প্রথম এগিয়ে দিয়েছিলেন গত মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতা রাফায়েল ওদোইন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এই লিডটা খুইয়েছে সাইফুল বারীর দল ব্রাদাসের্র উজবেক ফরোয়ার্ড ওতাবেকের কাছে। দিনের সেরা গোলটি করেছেন ওতাবেক। বক্সে বাঁ প্রান্তে বল পেয়েছেন, রাসেলের তিন ডিফেন্ডারকে পেরিয়ে তিনি ভেতরে ঢুকেছেন, এরপর ডান পায়ের দারুণ প্লেসিং শট তাঁর দূরের পোস্টে। শেষ পর্যন্ত তাই ১ পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে সাইফুল বারীর দলকে। গতবার ব্রাদার্স কোনো রকমে অবনমন এড়িয়েছিল, তাদের কাছে শুরুতেই পয়েন্ট হারানোটা সতর্কবার্তাই গতবার তৃতীয় স্থানে থাকা রাসেলের জন্য।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা