kalerkantho

রবিবার । ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩ ফাল্গুন ১৪২৬। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪১

উল্টো বিদেশির সংখ্যা বাড়ল লিগে

বাফুফের সিনিয়র সহসভাপতি সালাম মুর্শেদী ক্লাবের পারফরম্যান্সের ভালো-মন্দ নিয়ে খুব চিন্তিত। তাতে যে দেশের ফুটবল ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, সেদিকে তাঁর খেয়াল নেই। গতবার ছিল চার বিদেশির চারজনই খেলতে পারবেন একাদশে। এবার পাঁচ বিদেশিকে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ দিয়ে একাদশে চারজন খেলার নিয়ম ঠিক আছে। নতুন করে পঞ্চমজনকেও বিদেশির বদলি হিসেবে খেলানোর সুযোগ করে দিয়েছে লিগ কমিটি।

৩০ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



উল্টো বিদেশির সংখ্যা বাড়ল লিগে

ক্রীড়া প্রতিবেদক : জাতীয় দলের কোচ ভাবেন এক ভাবে। আর ফুটবল ফেডারেশন করে অন্য ভাবে। কোচ চাইছেন লিগে দেশি ফুটবলারদের খেলার সুযোগ বাড়াতে আর ফেডারেশন হাঁটছে উল্টো পথে। সুযোগ আরো সংকুচিত করে লিগ কমিটি আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে দ্বাদশ পেশাদার লিগ শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সদ্য বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ ও তার আগের এসএ গেমস ফুটবলে ব্যর্থতার পর জাতীয় দলের কোচ জেমি ডে বলেছিলেন ঘরোয়া ফুটবলের পরিকাঠামো বদলের কথা। এমন এক কাঠামো যেখানে দেশি ফুটবলারদের খেলার সুযোগ বাড়বে এবং বিশেষ করে দেশি স্ট্রাইকাররা নিয়মিত খেলার সুযোগ পাবে ক্লাব দলে। ব্রিটিশ কোচের পর্যবেক্ষণ হলো, লিগে খেলার সুযোগ পায় না বলে স্ট্রাইকারদের গুণগত মান বাড়ছে না। এ জন্য গোলখরায় ভোগে জাতীয় দল। তাঁর এই প্রেসক্রিপশনের কথা সংবাদমাধ্যমে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়েছিল। কিন্তু এই বাস্তব সংকট বরাবরের মতো আমলে নেননি বাফুফে কর্তারা। তাই চার বিদেশির বদলি হিসেবে এবার বিদেশি নামানোর নতুন নিয়ম চালু করতে যাচ্ছে। লিগ কমিটির সভা শেষে চেয়ারম্যান সালাম মুর্শেদী নির্দ্বিধায় বলে দিয়েছেন, ‘ক্লাবগুলো অনুরোধ করেছে, বিদেশির পরিবর্তে যেন বিদেশি নামতে পারে। এটা আমরা মেনে নিয়েছি, কারণ ক্লাবগুলো অনেক টাকা বিনিয়োগ করছে। তা ছাড়া বিদেশি খেললে দলের পারফরম্যান্সও ভালো হয়।’

বাফুফের সিনিয়র সহসভাপতি সালাম মুর্শেদী ক্লাবের পারফরম্যান্সের ভালো-মন্দ নিয়ে খুব চিন্তিত। তাতে যে দেশের ফুটবল ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, সেদিকে তাঁর খেয়াল নেই। গতবার ছিল চার বিদেশির চারজনই খেলতে পারবেন একাদশে। এবার পাঁচ বিদেশিকে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ দিয়ে একাদশে চারজন খেলার নিয়ম ঠিক আছে। নতুন করে পঞ্চমজনকেও বিদেশির বদলি হিসেবে খেলানোর সুযোগ করে দিয়েছে লিগ কমিটি। বিদেশি খেলানোর ব্যাপারে যথেষ্ট উদার ফুটবলের এই লিগ কমিটি। 

এ ছাড়া কোনো ইভেন্ট সূচি মেনে করতে না পারায়ও তাদের জুড়ি মেলা ভার। দ্বিতীয়বারের মতো প্রিমিয়ার লিগ শুরুর তারিখ বদলে এখন ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরুর সিদ্ধান্ত হয়েছে। সালাম মুর্শেদী বলেছেন, ‘৫ ও ১২ ফেব্রুয়ারি আবাহনীর এএফসি কাপের খেলা বলে ক্লাবগুলো লিগ পিছিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে একমত হয়েছে। লিগ শুরু হবে ১৩ ফেব্রুয়ারি।’ এর আগে এই লিগ কমিটি ঘোষণা করেছিল ১ জানুয়ারি থেকে লিগ শুরু হবে। এরপর বদলে ৩০ জানুয়ারিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সূচি বদলের পেছনে তারা অজুহাত হিসেবে দাঁড় করায় বঙ্গবন্ধু কাপ ও এএফসি কাপকে। এসব ইভেন্ট যেন হুট করে এসে হাজির হয়েছিল! আসলে বাফুফে কর্মকর্তারা সভায় বসেন আগে-পিছে কোনো কিছুর কথা না ভেবেই। তাই দেশের ফুটবলের এই দুরবস্থা। পেশাদার লিগ এক যুগে পা রাখলেও বাফুফে এখনো ঘরোয়া মৌসুমের সময়সীমা চূড়ান্ত করতে পারেনি। এখনো লিগের রেলিগেশন ও প্রমোশন ঠিক করে সভায় বসে। ফুটবল সংশ্লিষ্ট অনেকে মনে করেন মৌসুমের সূচি, রেলিগেশন ইত্যাদি নিয়ম করে দিলে তো তাঁদের সভা আর লাগে না। ব্যক্তির গুরুত্ব থাকে না। তাই বে-নিয়মের ওলটপালটই তাঁরা পছন্দ করেন!

১৩ দলের এই লিগ গতবার হয়েছিল ছয় ভেন্যুতে। এবার হবে সাত ভেন্যুতে। চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস আগের মতোই নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়ামকে করেছে নিজেদের হোম ভেন্যু। এ ছাড়া শেখ রাসেল ক্রীড়াচক্রের সিলেট জেলা স্টেডিয়াম, সাইফ স্পোর্টিংয়ের ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়াম, মুক্তিযোদ্ধার গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম, চট্টগ্রাম আবাহনীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম, মোহামেডান স্পোর্টিংয়ের কুমিল্লা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ স্টেডিয়াম। বাকি সাত ক্লাবের হোম ভেন্যু ঢাকায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। লিগ চলাকালীন স্বাধীনতা কাপ করার পরিকল্পনা করছে বাফুফে। এ ছাড়া সভায় আগামী মার্চে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ শুরুর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা