kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

পদকজয়ীদের আনসারের সংবর্ধনা

২৯ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া প্রতিবেদক : এসএ গেমসে এবার বাংলাদেশের রেকর্ড ১৯ সোনা জয়ে আনসারের খেলোয়াড়দের অর্জন ৮ সোনা। আর্চার রোমান সানা একাই জিতেছেন ৩ সোনা, জোড়া সোনা জিতেছেন সুমা বিশ্বাস, সোনাজয়ী আরেক আর্চার শ্যামলী রায়ও আনসারের। এ ছাড়া টানা দ্বিতীয় এসএ গেমসে সোনা জেতা ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার ও কারাতেকা হুমায়রা আক্তার আনসারের হয়েই খেলেন জাতীয় পর্যায়ে। এই সোনাজয়ীরসহ এসএ গেমসে পদকজয়ী নিজেদের সব খেলোয়াড়কেই কাল সংবর্ধনা দিয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি। অলিম্পিকে খেলার যোগ্যতা অর্জন করা রোমান ল্যান্সনায়েক হিসেবে পদোন্নতিও পেয়েছেন।

গত এসএ গেমসে ১৯ সোনা, ৩৩ রুপা, ৯০টি ব্রোঞ্জসহ মোট ১৪২টি পদক জেতে বাংলাদেশ। তাতে ৮ সোনা, ১৩ রুপা, ৪৭টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৬৮টি পদক আনসারের খেলোয়াড়দের। কাল বাহিনীর সদর দপ্তরে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সোনাজয়ীদের এক লাখ টাকা, রুপাজয়ীদের ৭৫ হাজার ও ব্রোঞ্জজয়ীদের ৫০ হাজার টাকা করে অর্থ পুরস্কার দেওয়া হয়। রোমানকে ল্যান্সনায়েকের ব্যাজ পরিয়ে দেন আনসার ও ভিডিপির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল কাজী শরীফ কায়কোবাদ। পদোন্নতিতে ভীষণ খুশি দেশসেরা এই আর্চার, ‘আজকের দিনটা আমার জন্য বিশেষ। আনসার সব সময় আমার পাশে ছিল। আমার সাফল্যের  পেছনে তাদের অবদান অনেক।’ অলিম্পিকে সরাসরি যোগ্যতা অর্জনের পর রোমানকে ঘিরে এখন পদকেরও স্বপ্ন। জুনের আগে সেই লক্ষ্যে তৈরী যাবেন বলেও জানিয়েছেন এই আর্চার, ‘কোটা নিশ্চিত হওয়ার পর থেকেই অলিম্পিকের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছি আমি। জুনের আগে দুটি বিশ্বকাপ আরও বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক আসরে অংশ নেব। তাতে পুরোপুরি প্রস্তুত হয়েই আমি টোকিও যেতে পারবো, আশা করি।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা