kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মুখোমুখি প্রতিদিন

নতুন ফুটবলারদের জন্য এটা দারুণ সুযোগ

ফিলিস্তিনকে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ জিতিয়ে দারুণ খুশি তাদের কোচ মাকরাম দাবুব। তিউনিসিয়ার এই ফুটবল কোচ ফাইনাল শেষে নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে

২৬ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নতুন ফুটবলারদের জন্য এটা দারুণ সুযোগ

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত খুব সহজ হয়ে গেল?

মাকরাম দাবুব : ম্যাচের আগে ব্যাপারটা এত সহজ ছিল না। বুরুন্ডি মোটেও সহজ প্রতিপক্ষ নয়। বিশেষ করে তাদের ফরোয়ার্ড লাইন খুব ভালো। তারা সুযোগ পেলে ম্যাচ শেষ করে দিত। কিন্তু বুরুন্ডির বিপক্ষে ট্যাকটিক্যাল ম্যাচ খেলেই আমরা শিরোপা জিতেছি।

প্রশ্ন : সাত গোল করা জসপিনকে ফিলিস্তিন সুযোগই দেয়নি।

মাকরাম : শুরু থেকেই আমাদের রক্ষণভাগ খুব ভালো খেলেছে। এর আগে কোনো দলই আমাদের জালে বল পাঠাতে পারেনি। জসপিনকে নিয়ে আমাদেরও বিশেষ পরিকল্পনা ছিল। আমাদের রক্ষণভাগ তাদের সেভাবে সুযোগ দেয়নি, তারা আমাদের পোস্টে বেশি শট নিলেও সেগুলো বিপজ্জনক কিছু ছিল না।

প্রশ্ন : ২৬ মিনিটেই ৩-০ গোলের লিড নিয়ে ফিলিস্তিন শিরোপা একরকম নিশ্চিত করে ফেলে। এরপর আসলে ফাইনালের আকর্ষণ কিছু ছিল না।

মাকরাম : ওদের রক্ষণভাগ নিয়ে আমাদের কিছু পর্যবেক্ষণ ছিল। তা ছাড়া কাউন্টারে আমাদের ফরোয়ার্ডদের সঙ্গে কুলিয়ে ওঠা কঠিন হতো তাদের রক্ষণের পক্ষে। গোল আগে পেয়ে যাওয়ায় ম্যাচটা সহজ হয়ে গেছে। এরপর সতর্ক হয়ে রক্ষণ সামলে ম্যাচ শেষ করতে চেয়েছিলাম আমরা।

প্রশ্ন : কিন্তু এই দল তো ফিলিস্তিনের এক নম্বর জাতীয় দল নয়। তুলনা করলে আগেরবারের চেয়ে দুর্বল দল। তারাই শিরোপা জিতে নিয়েছে!

মাকরাম : ফিলিস্তিনের মূল দলের অনেকে নেই এই দলে। বেশ কিছু নতুন ফুটবলার খেলেছে। তাদের জন্য এটা সুযোগ ছিল আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রমাণ করার। তারা সেটা করেছে, সুবাদে সামনে তাদের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল।

প্রশ্ন : শেষ প্রশ্ন। ওরকম কঠিন দল ছিল না টুর্নামেন্টে, তাই শিরোপাটাকে কিভাবে মূল্যায়ন করবেন?

মাকরাম : ফাইনালটা একতরফা হয়ে গেল বলে আপনাদের তাই মনে হচ্ছে। আসলে তা নয়, যেকোনো টুর্নামেন্ট কঠিন। কারণ প্রত্যেক ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ, তাই টুর্নামেন্টের চ্যালেঞ্জ অন্য রকম।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা