kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সবাইকে ছাপিয়ে বর্ষসেরা রোমান

২৫ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সবাইকে ছাপিয়ে বর্ষসেরা রোমান

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান নন, নন ফুটবলার জামাল ভূঁইয়া। ‘কুল-বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড’-এ বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদের পুরস্কার জিতে নিয়েছেন আর্চার রোমান সানা। অলিম্পিকে খেলার যোগ্যতা অর্জন করার পাশাপাশি রোমান গত বছর বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ, এশিয়া কাপ আর্চারিতে সোনার বছর শেষে দক্ষিণ এশীয় গেমসেও তিন তিনটি সোনা জিতেছেন। তাই ক্রিকেটের মহাতারকাকে টপকে, ফুটবলে নতুন তারকা হয়ে ওঠা জামালকে পাশ কাটিয়ে বিএসপিএ (বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশন) ২০১৯-এর সেরা ক্রীড়াবিদের ট্রফিটা তুলে দিয়েছে রোমানের হাতেই।

বিএসপিএর এই মূল্যায়নে এবার এক হয়েছেন ক্রীড়াপ্রেমীরাও। কারণ তাঁদের ভোটেই যে এবার সাকিব, জামাল, কারাতেকা মারজান আক্তার, ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার ও ফেন্সার ফাতেমা মুজিবকে পেছনে ফেলে পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ডও জিতেছেন রোমান। বছরের সেরা আর্চারও তিনি। সোনারগাঁও হোটেলের গ্র্যান্ড বলরুমে জমকালো আয়োজনের পুরো আলোটাই তাই কেড়ে নিয়েছেন রোমান। বিএসপিএ সভাপতি মোস্তফা মামুন এবং বিএসপিএ যে আন্তর্জাতিক সংস্থার অধিভুক্ত সেই এআইপিএস এশিয়ার সভাপতি সাত্তাম আল সোহেলিকে পাশে নিয়ে রোমানের হাতে সেরার এই ট্রফি তুলে দিয়েছেন স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু।

রোমান যেমন আর্চারির সেরা, তেমনি সাকিব বর্ষসেরা ক্রিকেটার হয়েছেন, জামাল হয়েছেন বর্ষসেরা ফুটবলার। এ ছাড়া বর্ষসেরা কারাতেকা হুমায়রা আক্তার, ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার, ফেন্সার ফাতেমা মুজিব ও বর্ষসেরা তায়কোয়ান্দো খেলোয়াড়ের পুরস্কার নিয়েছেন দীপু চাকমা। উদীয়মান ক্রীড়াবিদ হয়েছেন ১৪ বছর বয়সে এসএ গেমসে তিনটি সোনা জেতা আর্চার ইতি খাতুন। তৃণমূলের ক্রীড়াঙ্গনে অবদান রাখার জন্য বর্ষসেরা ব্যক্তিত্ব হয়েছেন নোয়াখালীর অ্যাথলেটিকস কোচ রফিকউল্লাহ আক্তার মিলন ও ঠাকুরগাঁওয়ের ফুটবল সংগঠক তাজুল ইসলাম। এ ছাড়া বর্ষসেরা সংগঠক আর্চারি ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কাজী রাজিবউদ্দিন আহমেদ চপল এবং বর্ষসেরা কোচের পুরস্কার জিতেছেন আর্চারির জার্মান কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ। বিশেষ সম্মাননা পেয়েছেন সাবেক কাবাডি খেলোয়াড় ও কোচ আব্দুল জলিল। ২০১৯-এর সেরা পৃষ্ঠপোষক হয়েছে সিটি গ্রুপ। জাফর উদ্দিন সিদ্দিকী (এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর, সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং, সিটি গ্রুপ) এই পুরস্কার নিয়েছেন।

সেই ১৯৬৪ সাল থেকে দেওয়া হচ্ছে এই পুরস্কার। বাংলাদেশ তো বটেই, এটি এশিয়ারও সবচেয়ে পুরনো ক্রীড়া পুরস্কার হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন এই আয়োজন উপলক্ষে ঢাকায় আসা এআইপিএস এশিয়ার সভাপতি সাত্তাম, ‘বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড সম্ভবত এশিয়ার সবচেয়ে পুরনো ক্রীড়া পুরস্কার। এটা দারুণ ব্যাপার।’

যাঁরা পুরস্কার জিতেছেন তাঁদের সংখ্যাটাই অনেক। তাঁদের হাতে যাঁরা পুরস্কার তুলে দিয়েছেন সেই সাইফুল আলম রিংকি, মরিয়ম তারেক, কামরুন্নাহার হিরু, আব্দুল গাফফার, সাইদুর রব, ফুটবল কোচ জেমি ডে, বসুন্ধরা কিংস সভাপতি ইমরুল হাসান, সংগঠক রিয়াজউদ্দিন আল মামুন, তরফদার মোহাম্মদ রুহুল আমিন, বিওএ মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজাদের মতো ক্রীড়া ব্যক্তিত্বের জৌলুস বাড়িয়েছেন আরো। আয়োজনটা মনোমুগ্ধকর হয়ে উঠেছিল সাবেক ফুটবল তারকা শেখ মোহাম্মদ আসলামের গান এবং জাতীয় নারী ফুটবল দলের দুই খেলোয়াড় মারিয়া মান্দা ও শিউলি আজিমের নৃত্যে। অনুষ্ঠানের শুরুতেই কারাতের কসরত দেখিয়েছেন হুমায়রা আক্তার, তা শেষ হয়েছে রোমান সানার উচ্ছ্বাসে, ‘একই সঙ্গে পপুলার চয়েস অ্যাওয়ার্ড এবং বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ হওয়া দারুণ ব্যাপার। এই অনুপ্রেরণা অলিম্পিক পর্যন্ত নিয়ে যেতে যাই। দেশকে একটা পদক উপহার দেওয়াই আমার লক্ষ্য।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা