kalerkantho

বুধবার । ৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

বিদায়ের পর অনিশ্চয়তায় শারাপোভা

২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিদায়ের পর অনিশ্চয়তায় শারাপোভা

আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে দেখা যাবে তো মারিয়া শারাপোভাকে? নিশ্চিত নন সাবেক এই নাম্বার ওয়ান নিজেই। গতকাল কাঁধের চোট নিয়ে প্রথম রাউন্ডে ৩-৬, ৪-৬ গেমে হেরে গেছেন দোনা ভোকিচের কাছে। টানা তিন গ্র্যান্ড স্লামের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায়ের পর ক্যারিয়ার নিয়ে শঙ্কিত ২০০৮ সালে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জেতা এই তারকা। শারাপোভার বিদায়ের দিনে দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত করেছেন রাফায়েল নাদাল, ডমিনিক থিয়েম, স্তানিসলাস ওয়ারিংকা, ফাবিও ফোগিনি, মিলোস রাওনিক, মেডসিন কেইস, ক্যারোলিনা প্লিসকোভা, সিমোনা হালেপরা। ছেলেদের এককের ভবিষ্যৎ তারকা খ্যাত ১৮ বছরের জেনিক সিনার পেয়েছেন গ্র্যান্ড স্লামে তাঁর প্রথম জয়।

আগের দুটি গ্র্যান্ড স্লামে প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেওয়া মারিয়া শারাপোভা অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে খেলছিলেন ওয়াইল্ড কার্ড নিয়ে। কাঁধের চোট নিয়ে লড়াই করতে পারেননি অবশ্য। ক্রোয়েশিয়ার দোনা ভোকিচ হারিয়েছেন সরাসরি সেটে। সংবাদ সম্মেলনে শারাপোভার কাছ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল অবসর ভাবনা নিয়ে। জবাবে বলেন, ‘আমি জানি না। সত্যিই জানি না, আগামী বছর মেলবোর্ন পার্কে খেলতে পারব কি না। ’

তিনটি আলাদা দশকে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা একমাত্র খেলোয়াড় রাফায়েল নাদাল। গত বছর দুটি গ্র্যান্ড স্লামজয়ী এই কিংবদন্তির অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে শুরুটা হয়েছে দুর্দান্ত জয়ে। প্রথম রাউন্ডে বলিভিয়ার হুগো দেলিনকে ৬-২, ৬-৩, ৬-০ গেমে বিধ্বস্ত করেছেন নাদাল। মেলবোর্নে তিনি এসেছেন ফেদেরারের ২০ গ্র্যান্ড স্লাম জয়ের রেকর্ডে একটা চোখ রেখে। তবে সেটা না হলেও ভেঙে পড়ার কারণ দেখছেন না নাদাল, ‘ যদি ২০ নম্বরে পৌঁছি সেটা অসাধারণ হবে। ২১ হলে বলব দুর্দান্ত। ১৯-এ আটকে থাকি তাহলেও ক্যারিয়ারের যা অর্জন তা নিয়ে খুবই খুশি থাকব।’

গত বছর নভেম্বরে নেক্সট জেনারেশন এটিপি ফাইনাল টুর্নামেন্ট জিতে আলোয় এসেছিলেন ইতালির ১৮ বছর বয়সী জেনিক সিনার। রজার ফেদেরার, রাফায়েল নাদালরা উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছিলেন তাঁর। সেই সিনার গ্র্যান্ড স্লামে প্রথম জয় পেলেন ম্যাক্স পার্সেলকে ৭-৬, ৬-২, ৬-৪ গেমে হারিয়ে। এএফপি

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা