kalerkantho

শনিবার । ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

মুখোমুখি প্রতিদিন

প্রতিপক্ষ বিবেচনায় আমরা ভালো খেলেছি

১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রতিপক্ষ বিবেচনায় আমরা ভালো খেলেছি

ফিলিস্তিনকে প্রায় রুখেই দিচ্ছিল শ্রীলঙ্কা। অতিরিক্ত সময়ই দুটি গোল হজম করে ম্যাচটা হেরে বসে তারা। লঙ্কান কোচ পাকির আলীর শেষ মুহূর্তের মনোযোগ হারানো নিয়েই আক্ষেপ। ম্যাচ শেষে মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি সংবাদমাধ্যমের

 

কালের কণ্ঠ স্পোর্টস : দুর্ভাগ্য, ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত হারতে হলো আপনাদের?

পাকির আলী : খুব ভালো ম্যাচ ছিল এটা। ফিলিস্তিন দল অনেক শক্তিশালী। সে হিসেবে তারুণ্যনির্ভর একটা দল নিয়ে ওদের ৯০ মিনিট আটকে রাখতে পারায় অবশ্যই কৃতিত্ব দিতে হবে আমার খেলোয়াড়দের। তবে অতিরিক্ত সময়ে কিছু সময়ের জন্য আমরা মনোযোগটা হারিয়েছিলাম। তাতেই গোল দুটি হজম করতে হয়েছে, ম্যাচটাও হেরে গেলাম।

প্রশ্ন : আপনারা ওদের বিপক্ষে পয়েন্ট নিতে যাচ্ছেন, এই ভাবনাই কি শেষ মুহূর্তে খেলোয়াড়দের কিছুটা অমনোযোগী করে দিয়েছিল?

পাকির : ফিলিস্তিন গোলের জন্য হন্যে হয়ে উঠেছিল। এই অবস্থায় ডিফেন্সিভ অর্গানাইজেশনটা ধরে রাখা জরুরি ছিল। কিন্তু সেটা আমরা পারিনি। প্রথম গোলে লেফট ব্যাক পজিশনে ছিল না, পরের গোলে রাইট ব্যাক ঠিকঠাক কভার করতে পারেনি।

প্রশ্ন : ৬ মিনিট অতিরিক্ত সময়টাও তো আপনার বিপক্ষে গেছে...

পাকির : এটা রেফারির সিদ্ধান্ত, আমার বলার কিছু নেই। তবে ওই বাড়তি ৬ মিনিট খেলাটা সহজ নয় এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে।

প্রশ্ন : বাংলাদেশের বিপক্ষে তো এখন শ্রীলঙ্কার বাঁচা-মরার ম্যাচ...

পাকির : হ্যাঁ, জানি বাংলাদেশ এই ম্যাচটা জিতে সেমিফাইনালে যেতে মুখিয়ে আছে। তারা অলআউট ফুটবল খেলবে। আমরাও তা-ই খেলব।

প্রশ্ন : আজকের পারফরম্যান্সের পর কতটা আত্মবিশ্বাসী আপনি?

পাকির : সেদিন ফিলিস্তিন, বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ ছিল। দুই দলেরই কিছুটা জড়তা কাজ করছিল। তুলনায় আজ অনেক গতিময় ম্যাচ হয়েছে। তুলনামূলকভাবে আমরা তাই ভালো পারফরম করেছি বলেই বিশ্বাস করি। এ ম্যাচে ডিফেন্সটা ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমরা প্রায় পুরো ম্যাচ সেদিক দিয়েও ভালো করেছি। শুধু ওই শেষ সময়টুকু ছাড়া।

প্রশ্ন : বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচে কারা এগিয়ে?

পাকির : পেছনের রেজাল্টগুলো এখানে গৌণ। সেমিফাইনালে ওঠার ম্যাচটা দুই দলের জন্যই কঠিন হবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা