kalerkantho

শনিবার । ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৪ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ রাঙাতে আসছেন হুলিও সিজার

১৮ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ রাঙাতে আসছেন হুলিও সিজার

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ঢাকায় জিনেদিন জিদান এসেছেন, লিওনেল মেসি খেলে গেছেন। ফুটবল নক্ষত্রদের এই তালিকায় হুলিও সিজারের নাম যোগ হচ্ছে এবার। বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ উপলক্ষে ঢাকায় আসছেন এই কীর্তিমান ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক। আগামী ২৩ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালটি মাঠে বসেই দেখবেন ৪০ বছর বয়সী সিজার। ওই এক দিনই ঢাকায় থাকবেন তিনি। পুরো দিনে বাফুফে একাডেমি পরিদর্শনসহ আরো বেশ কয়েকটি কর্মসূচি থাকবে তাঁকে নিয়ে।

বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপ শুরুর আগেই স্বত্বাধিকারী প্রতিষ্ঠান কে-স্পোর্টসের ঘোষণা ছিল মুজিববর্ষের এই আয়োজন বিশেষভাবে রাঙাতে এবার বিশ্ব ফুটবলের বড় কোনো তারকাকে আনতে যাচ্ছেন তারা। কাল বাফুফে ভবনে কে-স্পোর্টসের সিইও ফাহাদ করিমকে পাশে নিয়ে সেই বড় নামটিই ঘোষণা করেছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। সিজারের নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনও চনমনে হয়ে ওঠে মুহূর্তে। সেলেসাওদের প্রেমে মজে প্রায় গোটা ফুটবলবিশ্বই। সিজার সেই হলুদ জার্সিতেই খেলেছেন দুটি বিশ্বকাপ, কোপা আমেরিকা জিতেছেন, দুইবার জিতেছেন  কনফেডারেশনস কাপ, পেয়েছেন গোল্ডেন গ্লাভস। ক্লাব ফুটবলে ইন্টার মিলানের হয়ে ট্রেবল জেতা এই সিজারকে ফিফা আনুষ্ঠানিকভাবে কিংবদন্তি ঘোষণা দিয়েছে আরো আগেই। কাফু, ভেরন, কাকা, রবার্তো কার্লোস, দিদিয়ের দ্রগবা, ডিয়েগো ফোরলানরা আছেন এই ‘ফিফা লিজেন্ডস’-এর তালিকায়। যাঁদের খ্যাতি, ইমেজ ব্যবহার করে তৃণমূলের ফুটবলটাকে আরো গতিশীল করার লক্ষ্য। তারই অংশ হিসেবে ২০১৮-তে বুটজোড়া তুলে রাখা সিজার আসছেন ঢাকায়। কাল ফাহাদ করিম বলেছেন, ‘মুজিববর্ষের এই বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপে আমরা বিশেষ কিছু একটা করতে চেয়েছি। সে জন্যই আমরা ফিফার কাছে চেয়েছিলাম এই কিংবদন্তিদের মধ্যে কেউ যেন এই টুর্নামেন্টের সময়ই ঢাকায় আসেন। তারাই হুলিও সিজারকে বেছে নিয়েছেন। ব্রাজিলের এই গোলরক্ষকে নিয়ে তো নতুন করে কিছু বলার নেই। আমরা সত্যি খুশি তাঁর ঢাকায় আসার খবরটি দেশবাসীকে দিতে পেরে।’

২২ জানুয়ারি সন্ধ্যায় সিজার ঢাকায় পা রাখবেন। পরেরদিন সকালে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে তাঁর দিনের কার্যক্রম শুরু করবেন। প্রথমইে বাড্ডায় বাফুফের ফুটবল একাডেমি পরিদর্শনে যাবেন সিজার। সেখানে অনূর্ধ্ব-১৫ ও অনূর্ধ্ব-১৮ বয়সী ফুটবলারদের দুটি গ্রুপের সঙ্গে সময় কাটানোর পাশাপাশি দেশের বেশ কয়েকজন গোলরক্ষককে নিয়ে আলাদা একটা সেশনও করার কথা ব্রাজিলের জার্সি গায়ে সবচেয়ে বেশি সময় গোল না খাওয়ার (৫৮১ মিনিট, ২০১০ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের সময়) এই রেকর্ডধারীর। এই সিজারেরই আবার এক ম্যাচে সবচেয়ে বেশি গোল হজমের রেকর্ডটাও হজম করতে হয়েছে ২০১৪ বিশ্বকাপে জার্মানির বিপক্ষে। জাতীয় দলের হয়ে ওই বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে তৃতীয় স্থান নির্ধারণীই তাঁর শেষ ম্যাচ। ফ্ল্যামেঙ্গোতে ক্যারিয়ার শুরু করা সিজার ২০১২-তে ইন্টার ছাড়ার পর কুইন্স পার্ক রেঞ্জার্স ও এমএলএসে কিছুদিন কাটিয়ে পর্তুগিজ লিগে আবার বেশ ভালো সময় কাটিয়েছেন বেনফিকার হয়ে। ২০১৮-তে শেষটা তাঁর ফ্ল্যামেঙ্গোতেই। ২৩ তারিখ ঢাকায় আসছেন অবশ্য তিনি পর্তুগালের লিসবন থেকে। পরদিন সকালে বাফুফে একাডেমির পর্ব শেষ করে দুপুরের আগেই মতিঝিলে বাফুফে ভবনসংলগ্ন অ্যাস্ট্রোটার্ফে বাংলাদেশ মহিলা দলের খেলোয়াড়দের অনুশীলনে সময় কাটাবেন। দুপুরের পর তাঁর আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন। এর পরই যাবেন তিনি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল উপভোগ করতে। টুর্নামেন্টের যেমন ফিকশ্চার বাংলাদেশ গ্রুপ রানার্স-আপ হয়ে শেষ চারে উঠলে সেদিন স্বাগতিকদেরই ম্যাচ থাকবে ফাইনালে ওঠার জন্য। সেই ম্যাচ দেখে রাতেই ঢাকা ছাড়াবেন ফিফা কিংবদন্তি।

মুজিববর্ষে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনাকেও আনার ঘোষণা দিয়েছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন। সেটি অবশ্য একবারেই আলাদা সফর। এবং ওই সফরের দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি। সিজার আসছেন এই মুজিববর্ষেই আয়োজিত বঙ্গবন্ধু গোল্ড কাপে বাড়তি আকর্ষণ যোগ করতে। ঢাকায় আসা কিংবদন্তিদের তালিকাটাও সমৃদ্ধ হতে যাচ্ছে তাতে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা