kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

যারা সেরা ক্রিকেট খেলবে তারাই জিতবে

১৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



যারা সেরা ক্রিকেট খেলবে তারাই জিতবে

ধরা-বাঁধা নিয়ম নেই, তবে ফাইনালের আগে দুই দলের অধিনায়ক কথা বলবেন—সেটিই তো প্রথা। রাজশাহী রয়ালসের আন্দ্রে রাসেল তা ঠিকই করেন। তবে ট্রফি উন্মোচন শেষেই চলে যান খুলনা টাইগার্সের মুশফিকুর রহিম। বঙ্গবন্ধু বিপিএলের শিরোপা জয়ে খুলনার সম্ভাবনা নিয়ে তাই কথা বললেন কোচ জেমস ফস্টার। ফাইনালের রোমাঞ্চের ছোঁয়া ভালোভাবেই পাওয়া গেল তাঁর কথাবার্তায়।

প্রশ্ন : রাজশাহী রয়ালসকে বেশ সহজেই হারিয়ে উঠেছেন ফাইনালে। সেখানে কেমন ম্যাচ হবে বলে মনে করছেন?

জেমস ফস্টার : ওরা দারুণ দল। রাজশাহী রয়ালসকে হারাতে হলে কাল (আজ) আমাদের খুব ভালো খেলতে হবে। সে জন্য যতটা ভালো সম্ভব প্রস্তুতি নিয়েছি। আমরা খুব আত্মবিশ্বাসী। টুর্নামেন্টে সর্বশেষ চারটি ম্যাচ জিতেছি টানা, যার প্রতিটি ম্যাচই আমাদের জন্য ছিল প্রায় নকআউটের মতো। আমরা তাই বেশ ভালো ছন্দে আছি। তবে ফাইনালে কেমন খেলব, তার ওপরই সব কিছু নির্ভর করছে।

প্রশ্ন : রাজশাহী রয়ালসে আছেন আন্দ্রে রাসেলের মতো ভয়ংকর ব্যাটসম্যান। বিস্ফোরক এক ইনিংসে দলকে ফাইনালে তুলেছেন যিনি। তাঁর জন্য আলাদা কোনো পরিকল্পনা রয়েছে আপনাদের?

ফস্টার : ওদের দলের প্রত্যেকের জন্যই আমাদের পরিকল্পনা আছে।

প্রশ্ন : ফাইনালের উইকেট কেমন হয়, সেটি কি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে?

ফস্টার : আমার তা মনে হয় না। কারা সেরা ক্রিকেট খেলে, চৌকস ক্রিকেট খেলে—সেটি হবে গুরুত্বপূর্ণ। ফাইনালের দুই দলের ব্যাটিং লাইনআপই ভীষণ শক্তিশালী। আর বোলিংয়েও অনেক বৈচিত্র্য রয়েছে। ফল তাই নির্ভর করবে সেরা ক্রিকেট খেলার ওপর; উইকেটের ওপর না। আমাদের ব্যাটিং লাইন বিস্ফোরক ছন্দে আছে। ব্যাটিং অর্ডারের প্রথম সাতজন টুর্নামেন্টজুড়েই নিজ নিজ জায়গা থেকে অবদান রেখেছে। এর পাশাপাশি বোলাররাও ফর্মে আছে বেশ।

প্রশ্ন : ওপেনিংয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাজমুল হোসেন শান্ত তো খুব ভালো করছে। দলের জন্য এটি কতটা গুরুত্বপূর্ণ?

ফস্টার : আহ্, সত্যি দারুণ ব্যাটিং করছে ওরা। দুর্দান্ত ফর্মে আছে এবং সে কারণেই সম্ভবত আমরা ফাইনাল পর্যন্ত আসতে পেরেছি। ওদের ফর্ম নিয়ে সত্যি খুব আনন্দিত। এই দুই ওপেনার ভীষণ আত্মবিশ্বাসী অবস্থায় আছে। অবশ্য শুধু ওরা নয়, প্রতিযোগিতার বিভিন্ন পর্যায়ে অনেকেই ঠিক সময়ে জ্বলে উঠেছে। শান্ত ভালো ক্রিকেটার। এক ম্যাচের জন্য ও একাদশ থেকে বাদ পড়েছিল। ফেরার পর থেকে নিজের জাত চিনিয়ে যাচ্ছে ও।

প্রশ্ন : আপনার দল খুলনা টাইগার্স বিপিএল ফাইনাল খেলছে। কোচ হিসেবে আপনি কতটা রোমাঞ্চিত?

ফস্টার : দেখুন, এখানে ব্যক্তিগতভাবে কিছু দেখার উপায় নেই। পুরোটাই দলের ব্যাপার। আমি মনে করছি, দল হিসেবেই আমরা এই ফাইনাল পর্যন্ত এসেছি। সে জন্য আমি অবশ্যই আনন্দিত কেননা সবাই-ই তো ফাইনাল খেলতে চায়। দলের সব ক্রিকেটার, কোচ, স্টাফরা কঠোর পরিশ্রম করেছি এবং এ ফাইনাল নিয়ে সবাই রোমাঞ্চিত। ম্যাচে আমাদের সাধারণ ব্যাপারগুলোই ভালোভাবে করতে হবে।

প্রশ্ন : এবারের বিপিএলে খুলনা টাইগার্সের কোচ হিসেবে এলেন, দলকে ফাইনাল পর্যন্ত নিয়ে এলেন—এই পুরো যাত্রাটি আপনার কাছে কেমন?

ফস্টার : আমি ভীষণ উপভোগ করেছি। বিপিএলে এটি আমার তৃতীয় মৌসুম। আর প্রধান কোচ হিসেবে প্রথমবার। সত্যি খুব ভালো সময় কাটিয়েছি। যে সাপোর্ট স্টাফ পেয়েছি, সে জন্য নিজেকে ভাগ্যবান মনে করি। আর ক্রিকেটাররা তো দুর্দান্ত। ছয় সপ্তাহের বেশি সময় ধরে দলটির সঙ্গে আছি। আর সত্যিই সময়টা উপভোগ্য ছিল খুব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা