kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ডি সিলভা নন ডিকেলা

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ডি সিলভা নন ডিকেলা

শুধুই কি নামবিভ্রাট? এমন হওয়ার কথা নয়। একজনের নাম ধনঞ্জয়া ডি সিলভা আরেকজনের নিরোশান ডিকেলা। আসলে সংবাদ সম্মেলনে আসা লঙ্কান ক্রিকেটার ডিকেলাকে চিনতেই ভুল করেছিলেন পাকিস্তানি সাংবাদিকরা। তাই একই ভুল দুইবার করেন পাকিস্তানি দুই সাংবাদিক। ডিকেলাকে অন্য খেলোয়াড় ভেবে প্রশ্ন করেছিলেন ডি সিলভার নাম ধরে! মেজাজ না হারিয়ে ডিকেলাও মজা করেন তাঁদের সঙ্গে, যা ভাইরাল হয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় দিন শেষে শ্রীলঙ্কার স্কোর ছিল ৬ উইকেটে ২৬৩। একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে ৩৩ রানে আউট হন ডিকেলা। আর ডি সিলভা অপরাজিত ৭২ রানে। মানে তৃতীয় দিন সেঞ্চুরির ভালো সম্ভাবনা তাঁর। পাকিস্তনি দুই সাংবাদিক ভেবেছিলেন মাত্র ৮২ মিনিট খেলা হওয়ায় শ্রীলঙ্কা হয়তো সংবাদ সম্মেলনে পাঠিয়েছে ডি সিলভাকে। কিন্তু আসলে এসেছিলেন ডিকেলা। এক সাংবাদিক প্রশ্ন ছোড়েন, ‘ডি সিলভা, আপনি দারুণ ব্যাটিং করেছেন। এখন কি সেঞ্চুরির কথা ভাবছেন?’ প্রশ্নটা শুনে স্তম্ভিত ডিকেলা। ভুল ধরিয়ে দিয়ে তিনি জানান, ‘আমি আসলে ডিকেলা, ডি সিলভা নই।’ নিজের ভুল বুঝতে পেরে চুপসে যান সেই সংবাদকর্মী। কাজ হয়নি তার পরও। আরেক পাকিস্তানি সাংবাদিক সঙ্গে সঙ্গেই করেন নতুন প্রশ্ন, ‘আমার প্রশ্ন এমন কন্ডিশনে দারুণ ব্যাটিং করেছেন। এখন এই পিচে কি একটা সেঞ্চুরি হতেই পারে?’

ডিকেলাও বুঝে যান কোথাও কিছু একটা ভুল হচ্ছে সংবাদ সম্মেলনে। তাই মজা করে তাঁর উত্তর, ‘আপনি আমার কথা বলছেন? আমি ডি সিলভা নই ডিকেলা! আমি এর মধ্যে আউট হয়ে গেছি। ফিরে গেছি প্যাভিলিয়নে (সেঞ্চুরি হবে কিভাবে)। দেখা যাক, হয়তো দ্বিতীয় ইনিংসে ভাবব সেঞ্চুরির কথা (হাসি)।’ ডিকেলার হাসি দেখে সংবাদ সম্মেলনেও পড়ে যায় হাসির রোল। প্রথমবার পাকিস্তানে টেস্ট খেলতে পেরে অবশ্য নিজের সন্তুষ্টি লুকাননি ডিকেলা, ‘সবাই বলছে কোনো পাকিস্তানি নাকি (বর্তমান দলের) নিজেদের মাটিতে টেস্ট খেলেনি। ওদের জন্য এটা দারুণ সুযোগ। এখানে খেলতে পেরে গর্বিত।’

দ্বিতীয় দিনের মতো গতকাল রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের তৃতীয় দিনেও ভুগিয়েছে বৃষ্টি আর আলোস্বল্পতা। প্রথম দুই দিন খেলা হয়েছিল ৮৬.৩ ওভার। আর গতকাল তৃতীয় দিন শেষ হয়েছে ৯১.৫ ওভারে। মানে খেলা হয়েছে ৩২ বল। শ্রীলঙ্কার স্কোর ৬ উইকেটে ২৮২ রান। ডি সিলভা ৮৭ ও দিলরুয়ান পেরেরা অপরাজিত ৬ রানে। বৃষ্টির বাগড়ায় তাই নিজেদের দেশে টেস্ট ফেরার উৎসব পণ্ড পাকিস্তানের। অভাবনীয় কিছু না হলে ড্র-ই নিয়তি এই ম্যাচের। ক্রিকইনফো

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা