kalerkantho

মঙ্গলবার । ২১ জানুয়ারি ২০২০। ৭ মাঘ ১৪২৬। ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

ক্রীড়া সাংবাদিক অর্ণবের হঠাৎ বিদায়

১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ক্রীড়া সাংবাদিক অর্ণবের হঠাৎ বিদায়

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ফিল হিউজের প্রতি ভালোবাসাটা ছিল বাড়াবাড়ি রকমের। মাথায় বল লেগে মাত্র ২৬ বছর বয়সে ওই অস্ট্রেলিয়ানের মৃত্যু কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি। তাইতো পাঁচ বছর পর এখনো তাঁর ফেসবুক প্রফাইলের পিকচারে অকালে চলে যাওয়া সেই ব্যাটসম্যান। কী আশ্চর্য, মাত্র ২৭ বছর বয়সে মৃত্যুর সেই অচেনা ভুবনে তো কাল পাড়ি জমালেন ক্রীড়া সাংবাদিক অর্ণব মজুমদারও!

লেখালেখি করতেন দীপায়ন অর্ণব নামে। সর্বশেষ কর্মরত ছিলেন বিডিনিউজ২৪ ডটকমের ক্রীড়া বিভাগের সহসম্পাদক হিসেবে। মৃত্যুর আগের দিনও এসেছিলেন শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ কাভার করার জন্য। হাসিখুশি অর্ণব গল্পে-আড্ডায় সেদিনও মাতিয়ে রাখেন প্রেসবক্স। কিন্তু কাল দুপুরে নিজেই এক অনন্ত আক্ষেপের গল্প হয়ে উঠলেন উঠতি এই ক্রীড়া সাংবাদিক। সুমন চট্টোপাধ্যায়ের ‘আজকে যে খুব জলজ্যান্ত, অ্যালবামে ঠাঁই পাবে কাল সে’ গানের কথা সত্যি করে।

উত্তরার দক্ষিণখানের বাসায় ছিলেন। পেট ব্যথা করায় মায়ের ন্যাওটা ছেলে অর্ণব নেত্রকোনায় থাকা জননীকে ফোন দেন। মায়ের পরামর্শে ওষুধ কেনার জন্য যান ফার্মেসিতে। সেখানে হঠাৎই লুটিয়ে পড়েন চেতনা হারিয়ে। পুলিশের সহায়তায় লোকজন তাঁকে নিয়ে যায় স্থানীয় কেসি হাসপাতালে। কিন্তু সেখানে যাওয়ার আগেই মৃত্যুর রহস্যঘেরা ভুবনে যাত্রা শুরু অর্ণবের। স্বজনদের কাছ থেকে তাঁর উচ্চ রক্তচাপ থাকার কথা জেনে চিকিৎসকদের ধারণা, হয়তো হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয়েছে। সৎকারের জন্য কালই তাঁর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হয় নেত্রকোনায়।

অর্ণবের বাবা দীলিপ কুমার মজুমদার মারা যান আগেই। মা ঝুনু রানী সরকার অবসরপ্রাপ্ত নার্স। একমাত্র বোন সুভদ্রা উর্মিলা মজুমদার পেশায় চিকিৎসক। গত অক্টোবরে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে যোগ দেওয়ার আগে তিন বছর কাজ করেন দৈনিক সমকালের ক্রীড়া বিভাগে।

অর্ণবের মৃত্যুতে কাল বিপিএলে ম্যাচের সময় জায়ান্ট স্ক্রিনে বার্তা দিয়ে শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা