kalerkantho

সোমবার। ২৭ জানুয়ারি ২০২০। ১৩ মাঘ ১৪২৬। ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

মুখোমুখি প্রতিদিন

বিপিএলে আমার মধ্যে একটা আনন্দ কাজ করে

৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিপিএলে আমার মধ্যে একটা আনন্দ কাজ করে

নিজের সামর্থ্যের ঝলক প্রথম দেখান বিপিএলে। পরে নিজেকে খুঁজেও পান এই টুর্নামেন্টে। গত বিপিএলে ১২ ম্যাচে ২২ উইকেট নিয়ে জাতীয় দলে আবার ডাক পান তাসকিন আহমেদ। নতুন আসরের আগে তাই ভীষণ অনুপ্রাণিত রংপুর রেঞ্জার্সের এই পেসার। কাল গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানালেন তেমনটাই

প্রশ্ন : এবারের বিপিএলে আপনার লক্ষ্য কী?

তাসকিন আহমেদ : আসলে আমার এখন লক্ষ্যই হলো—যেখানেই সুযোগ হোক, ভালো খেলা। বিপিএলে নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করব ভালো খেলার। ভালো পারফরম করে জাতীয় দলে যেন খেলার সুযোগ পাই, এটাই আমার লক্ষ্য।

প্রশ্ন : আপনার তো মূল শক্তি গতি। তা নিয়ে যদি কিছু বলেন।

তাসকিন : গতি তো আছেই। সঙ্গে এটাও ঠিক যে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে সব বল জোরে করা যাবে না। এখানে বৈচিত্র্যটা গুরুত্বপূর্ণ। আমি তাই চেষ্টা করব, পরিস্থিতি বুঝে দলের চাহিদা পূরণ করার। এটাই লক্ষ্য থাকবে।

প্রশ্ন : গত বিপিএলে দুর্দান্ত করেছেন। তার চেয়ে ভালো করার টার্গেট রয়েছে কি না?

তাসকিন : আশা তো থাকবেই আগের থেকে ভালো করার। কিন্তু দিন শেষে এটা একটা খেলা। ভালো-খারাপ হবেই। আমি চেষ্টা করব, প্রতি ম্যাচে সর্বোচ্চটা দিতে  যাতে আমার কারণে রংপুর রেঞ্জার্স ম্যাচ জিততে পারে।

প্রশ্ন : আপনার ক্যারিয়ারে বারবারই ইনজুরি এসেছে। সেটি সামলে চলা একজন ফাস্ট বোলারের জন্য কতটা কঠিন?

তাসকিন : আমার ইনজুরি ম্যানেজমেন্ট এখন আগের চেয়ে ভালো। আমি ভালো বুঝতে পারি, শরীরের ধরন বা কিভাবে কী করা যায়। তাও ইনজুরি আসলে জীবনেরই অংশ, পেসারদেরই বেশি হয়। তো চাইব নিজের ডিসিপ্লিন যেন ঠিক রাখতে পারি।

প্রশ্ন : ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে বিপিএলেই আপনি প্রথম নজর কাড়েন। পরে গত আসরে আবার দুর্দান্ত পারফরম করে জাতীয় দলে ফেরেন। এই টুর্নামেন্টে খেলার জন্য কি আপনি বাড়তি অনুপ্রাণিত থাকেন?

তাসকিন : আসলে বিপিএল আমি খুব উপভোগ করি। আমার খুব ভালো লাগে। কারণ এটি বাংলাদেশের সেরা টুর্নামেন্ট। অনেক তারকা খেলোয়াড় থাকে, তাঁদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার করা হয়। সব মিলিয়ে অন্য রকম আমেজ থাকে। বিপিএলে আমার মধ্যে একটা আনন্দ কাজ করে; টুর্নামেন্টটি খুব উপভোগ করি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা