kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

জয়ে ফিরল ম্যানসিটি

৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গত মৌসুমের অর্ধেকেরও বেশি সময়জুড়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে ছিল লিভারপুল, পায়ে পায়ে ঠিক পেছনেই ছিল ম্যানচেস্টার সিটি। ২৭ নম্বর ম্যাচের পর পয়েন্ট সমান হয় দুই দলের, যদিও তখনো লিভারপুলের ম্যাচসংখ্যা একটি কম ছিল। উৎসবের মৌসুমে টানা খেলার ধকলে আর চোটে সেরা তারকাকে হারিয়ে এই সময়েই পয়েন্ট টেবিলের উত্থান-পতন ঠিক করে দেয় শিরোপার গন্তব্য। শুরু হয়ে গেল ডিসেম্বর মাস, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ঠাসবুনোট সূচির মাসে ম্যানচেস্টার সিটির সামনে টানা তিনটি কঠিন ম্যাচ; ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, আর্সেনাল ও লিস্টার। ১ জানুয়ারি পর্যন্ত ছয়টি ম্যাচ। রোলার কোস্টার রাইডে চড়ার আগে বার্নলির বিপক্ষে ৪-১ গোলে জিতে ৩টি পয়েন্ট হাতে রেখে নিল সিটিজেনরা। লিভারপুলের চেয়ে একটি ম্যাচ বেশি খেলেও ৮ পয়েন্ট পেছনে ম্যানসিটি, তবে উৎসবের মৌসুমের হুড়াহুড়িতে এই ব্যবধানও কমিয়ে আনা সম্ভব।

চলতি মৌসুমে, বার্নলির বিপক্ষে ম্যাচটি খেলার আগে ১১ ম্যাচে মাত্র ৩ গোল ছিল ম্যানসিটির ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল জেসুসের। মঙ্গলবার রাতে তিনিই করলেন জোড়া গোল, একটি বাতিল হলো অফসাইডে। ম্যাচের ২৪ মিনিটে বাঁ-দিক থেকে বাঁকানো শটে প্রথমটা আর ৫০ মিনিটে বার্নার্দো সিলভার ক্রসে ফ্লিক করে দ্বিতীয় গোলটি করেছেন জেসুস। ৬৮ মিনিটে ব্যবধানটা আরো বাড়িয়ে ৩-০ করে দেন রদ্রিগো, আর শেষ সময়ে (৮৭ মিনিট) রায়াদ মাহরেজ গোল করে ম্যানসিটিকে যখন ৪-০ গোলে জেতানোর অপেক্ষায়, তখন গোল হজম করে বসে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। ৮৯ মিনিটে রবি ব্র্যাডি গোল করে খানিকটা ব্যবধান কমানোর সান্ত্বনা এনে দেন স্বাগতিক দর্শকদের জন্য। দুই সপ্তাহ পর কোনো ম্যাচ থেকে ৩ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ল ম্যানসিটি। বিবিসি

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা