kalerkantho

রবিবার । ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১০ রবিউস সানি ১৪৪১     

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে মরিনহো

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে হোসে মরিনহোর চেয়ারে বসেছেন ওলে গানার শোলসকায়ের। সেই মরিনহো এখন টটেনহামের ম্যানেজার। আজ বিপক্ষ দলের হয়ে মরিনহো ফিরছেন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। গ্যালারির কেমন অভ্যর্থনা পান এই পর্তুগিজ, দেখার হবে সেটা। আর টটেনহাম যদি হারিয়েই দেয় ম্যানইউকে তখন দেখার হবে শোলসকায়েরের কী হয়? ব্রিটিশ মিডিয়ায় গুঞ্জন, হেরে গেলে শোলসকায়ের নাকি শঙ্কা করছেন চাকরি হারানোর? গতকাল ডেইলি মেইলের খবর, ‘ফুটবলারদের শোলসকায়ের বলেছেন এই ম্যাচ হারা মানে তার ছাঁটাইয়ের পথ সুগম করা।’ ম্যানইউর মালিকপক্ষ অবশ্য সব সময় পাশে ছিলেন শোলসকায়েরের। এই মৌসুমে নতুন কাউকে আনতেও চায় না তারা। এ জন্য ছাঁটাইয়ের ভয় পাওয়ার গুঞ্জন গতকাল সংবাদ সম্মেলনে উড়িয়ে দিলেন শোলসকায়ের, ‘ফুটবলে ফলটাই সব। আমরা জানি আরো ভালো করার সামর্থ্য আছে এই দলের। তাই কঠোর পরিশ্রমও করছি। চাকরি নয়, পরের ম্যাচে ভালো করা নিয়ে বেশি উদ্বিগ্ন আমি।’ মরিসিও পচেত্তিনোর চেয়ারে মরিনহো বসার সময় টটেনহাম ছিল ১৪ নম্বরে। তিনি দায়িত্ব নিয়ে হ্যারি কেইনদের পৌঁছে দিয়েছেন পাঁচ নম্বরে। আর ম্যানইউ আছে ৯ নম্বরে। সমান ১৪ ম্যাচ শেষে টটেনহামের পয়েন্ট ২০ আর ম্যানইউর ১৮। ব্যবধান খুব বেশি নয়। তবে ম্যানইউ হেরে গেলে পিছিয়ে পড়বে আরো। সাবেক ম্যানেজার মরিনহোর কাছে হারার সেই ধাক্কাটা সামলাতে পারবেন তো শোলসকায়ের? ডেইলি মেইল

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা