kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১২ রবিউস সানি     

ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ফুটবল

৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি ফুটবল

কাঠমাণ্ডু থেকে প্রতিনিধি : ভুটানের কাছে হারের ধাক্কা কালও সামলে উঠতে পারেনি বাংলাদেশ ফুটবল দল। মালদ্বীপের বিপক্ষে এগিয়ে গিয়েও ১-১ গোলের ড্রয়ে ম্যাচ শেষ করেছে তারা। দশরথ স্টেডিয়ামে শুরুটা ভালো ছিল জেমি ডের শিষ্যদের। আগের দিনের চেয়ে আত্মবিশ্বাসের ছাপ ছিল খেলায়। গোছানো আক্রমণ ছিল। ম্যাচের আধাঘণ্টাতেই এগিয়ে যাওয়া গোলটা পেয়ে যায় বাংলাদেশ। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে গত দিনের সেই হতশ্রী চেহারা। মালদ্বীপ তখন অনেক শ্রেয়তর দল। ৭০ মিনিটে সমতা ফেরানো গোলটাও পেয়ে যায় তারা।

গেমসে এখনো পর্যন্ত জিতেছে শুধু স্বাগতিক নেপাল ও ভুটান। নেপালিরা কাল ভুটানকেই ৪-০ গোলে হারিয়ে নিজেদের শক্তি দেখিয়েছে। আগের দিন শ্রীলঙ্কার সঙ্গে গোলশূন্য ড্রয়ের পর কাল বাংলাদেশেদের সঙ্গেও ড্র মালদ্বীপের। তাতে নেপাল ও ভুটানের পরই আছে তারা। এরপর বাংলাদেশ আর শ্রীলঙ্কা। রাউন্ড রবিন লিগ শেষে শীর্ষ দুই দল খেলবে ফাইনাল। জেমি ডে এখান থেকেও সেই ফাইনালের আশা ছাড়ছেন না, ‘আমি মনে করি না এখনো ফাইনালে খেলার আশা শেষ হয়ে গেছে। তবে আমাদের পরের দুটি ম্যাচই জিততে হবে।’ ভুটানের ম্যাচ থেকে গতকালের ম্যাচে ফুটবলারদের উন্নতিও চোখে পড়েছে তাঁর, ‘খেলোয়াড়দের আজকের পারফরম্যান্সে আমি খুশি। প্রথমার্ধে আমাদের একটি গোল বাতিল না হলে ২-০-তে এগিয়ে যেতে পারতাম আমরা। আর টানা দুটি ম্যাচ খেলা তো কঠিন, দ্বিতীয়ার্ধে তারই প্রভাব পড়েছে।’ প্রথমার্ধের ২০ মিনিটেই সাদ উদ্দিন পোস্টের কাছ থেকে বল জালে ঠেললেও রেফারির সিদ্ধান্ত তার আগেই বল সীমানা ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছিল। জেমির দৃষ্টিতে যা ছিল পরিষ্কার গোল। সেই গোল বাংলাদেশ পায় এর মিনিট দশেক পরই। রবিউল ইসলামের লং থ্রো বক্সের ভেতর রিয়াদুল হাসানের মাথা ছুঁয়ে জালে জড়ালে। সমতায় ফিরতে দ্বিতীয়ার্ধে মালদ্বীপ একাধিক সুযোগ তৈরি করে। ৭০ মিনিটে ইব্রাহিম মাহুদি হুসেন মাঝমাঠ থেকে বল পেয়ে কোনাকুনি শটে বল জালে পাঠিয়েছেন, এর আগের মিনিটেই তাঁর একটা শট পোস্টে লাগে। বাংলাদেশের তৃতীয় ম্যাচ আগামীকাল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ফাইনাল, কি পদকের রেখা সেখানেই স্পষ্ট হয়ে যাবে নিশ্চিত। কারাতেকাদের উপহার দেওয়া সোনালি দিনে কাল পোখারায় মেয়েদের ক্রিকেটে দারুণ জয় এসেছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে, ফুটবলের জয়টা হতো আত্মবিশ্বাসজাগানিয়। তবে এই তলানি থেকেই লড়ার চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে এখন জামাল ভূইয়াদের। কাল শুরু হওয়া শ্যুটিংয়ে ভারতীয়দের আধিপত্যের মাঝে বাংলাদেশের অর্জন দুটি রুপা। মেয়েদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে দলগত বিভাগে প্রথম রুপা আসে, তবে এই সাফল্যটুকু এককের ফাইনালে টেনে নিয়ে যেতে পারেননি সৈয়দা আতকিয়া হাসান, সেখানে যে ভারত শীর্ষ তিন পজিশনেই। ছেলেদের ৫০ মিটার এয়ার রাইফেল থ্রি পজিশনেও একই ছবি। দলগতভাবে ভারতের পর থেকে আব্দুল্লাহেল বাকী, ইউসুফ আলী, শোভন চৌধুরীরা রুপা এনে দিলেও এককে হয়েছেন ব্যর্থ। আটজনের মধ্যে ইউসুফ ষষ্ঠ, সপ্তম হয়েছেন বাকী। উশুতে ওমর ফারুক জিতেছেন রুপা।

কাল শুরু হয়ে গেছে অ্যাথলেটিকসও। তাতে হাইজাম্পে বাংলাদেশকে প্রথম রুপা এনে দিয়েছেন মাহফুজুর রহমান। গত জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে রেকর্ড গড়েই এসএ গেমসে দারুণ কিছুর আশা জাগিয়েছিলেন তিনি। কাল নিজের সেই জাতীয় রেকর্ডও ছাড়িয়ে গেলেন (২.১৬) তবে সোনার লড়াইয়ে ভারতকে পেছনে ফেলা হলো না। সকালে হিট হয়ে গেমসের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইভেন্ট ১০০ মিটার স্প্রিন্টের ফাইনালও হয়ে গেছে কাল। তাতে দক্ষিণ এশীয় গেমসের রেকর্ডধারী শ্রীলঙ্কার হিমাশা ইশানকে হারিয়ে দ্রুততম মানবের খেতাব নিয়েছেন মালদ্বীপের হাসান সাইদ। দক্ষিণ এশীয় আসরেই মালদ্বীপের যা প্রথম সোনা। অনেক দিন থেকেই স্প্রিন্টে আলো কাড়ছিলেন সাইদ। এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে একাধিকবার খেলেছেন সেমিফাইনাল। কাল ১০.৪৯ সেকেন্ডে অবশেষে দক্ষিণ এশিয়ার মুকুট পরা হলো তাঁর। ট্র্যাক ফিল্ডে লঙ্কানদের কাল অনেকটাই হতাশ হতে হয়েছে। দ্রুততম মানবীর খেতাবও হাতছাড়া করেছে তারা। ভারতের অর্চনা সুসিন্দ্রান জিতেছেন তা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা