kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

অষ্টম রাউন্ডে দল পেলেন মাশরাফি

১৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অষ্টম রাউন্ডে দল পেলেন মাশরাফি

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরিতে মাত্র চার ক্রিকেটার— মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাশরাফি বিন মর্তুজা ও মাহমুদ উল্লাহ। কিন্তু বঙ্গবন্ধু বিপিএলের সাত দলের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে যে ওই চতুষ্টয়, তা বলা যাবে না কিছুতেই। প্রথম সাত রাউন্ডের ৪৯ জনের মধ্যে যে মাশরাফিকে ডাকে না কোনো দল! অবশেষে অষ্টম রাউন্ডে যমুনা ব্যাংক ঢাকা প্লাটুন দলে ভেড়ায় বিপিএলের সফলতম অধিনায়ককে। প্লেয়ার্স ডাফটে ৫৩ নম্বর ক্রিকেটার হিসেবে!

টেস্ট ক্রিকেট খেলেন না তিনি ১০ বছর। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি থেকেও অবসর বছর দুয়েক আগে। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের জার্সিতে আর কখনো দেখা যাবে কি না, সেটি এখনো অনিশ্চিত। তবে খেলা থেকে যে অবসর নিচ্ছেন না, বিপিএলের ড্রাফট লিস্টে মাশরাফির নাম থাকাতেই তার প্রমাণ। কিন্তু ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে থাকা এই পেসারকে ততটা কার্যকর ভাবছে না দলগুলো। তাঁর অধিনায়কত্বও বিবেচ্য হয় না সেভাবে। একসময় তো শঙ্কা জাগে, দলই পাবেন কি না মাশরাফি। মাস কয়েক আগেও বাংলাদেশের ক্রিকেট বাস্তবতায় যেটি ‘অসম্ভব’ ছিল, সেটি শেষ পর্যন্ত হয়নি ঢাকা প্লাটুন তাঁকে দলে ভেড়ালে।

বিসিবির তত্ত্বাবধানের এবারের এই বিশেষ বিপিএলে নেই কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। সাতটি দলই থাকছে বোর্ডের অধীনে। প্রতি দলের সঙ্গে সংযুক্ত বিসিবির একজন করে পরিচালক। নামও বদলে গেছে দলগুলোর। নিলামে প্রথম ডাকার সুযোগ পেয়ে প্রিমিয়ার ব্যাংক খুলনা টাইগার্স নেয় মুশফিকুর রহিমকে। দ্বিতীয়তে ঢাকা প্লাটুন নেয় তামিম ইকবালকে। রাজশাহী রয়ালস নেয়নি ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরির কাউকে; ‘এ’ ক্যাটাগরি থেকে লিটন দাসকে বেছে নেয় তারা। লটারিতে এরপর সুযোগ পেয়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স নেয় মাহমুদ উল্লাহকে। প্রথম চার সুযোগের মধ্যে ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরির তিন ক্রিকেটার বিক্রি হয়ে যায়। কিন্তু মাশরাফি অবিক্রীত থাকেন দীর্ঘ সময়।

প্রথম চার সুযোগের মধ্যে ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরির তিন ক্রিকেটার বিক্রি হয়ে যায়। কিন্তু মাশরাফি অবিক্রীত থাকেন দীর্ঘ সময়। দেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে মাশরাফি বিক্রি হয়েছেন শেষ দিকে।

দেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে মাশরাফি বিক্রি হয়েছেন শেষ দিকে। আর বিদেশিদের মধ্যে বিক্রি হওয়া একেবারে শেষ ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদি। সেই ঢাকা প্লাটুনেই তাঁর ঠিকানা। বিদেশিদের মধ্যে প্রথম ডাকের নামটি অবশ্য একেবারেই বিস্ময় ছড়াবে না। ক্রিস গেইল। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স নেয় এই ক্যারিবিয়ান দানবকে।

দলগুলোর মধ্যে খুলনা টাইগার্স নেয় মুশফিক, শফিউল ইসলাম, নাজমুল হোসেন, আমিনুল ইসলাম, শামসুর রহমান, সাইফ হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজের মতো ক্রিকেটারদের। সঙ্গে বিদেশি রাইলি রুশো, রবি ফ্রাইলিংক, মোহাম্মদ আমির, রায়াট এমরিটদের। ঢাকা প্লাটুন তামিম-মাশরাফি-আফ্রিদিদের ছাড়াও নেয় এনামুল হক, হাসান মাহমুদ, মেহেদী হাসান, আরিফুল হক, মমিনুল হক, থিসারা পেরেরা, লরি ইভান্সদের। রাজশাহী রয়ালস দলে ভেড়ায় লিটন, আফিফ হোসেন, আবু জায়েদ, তাইজুল ইসলাম, রবি বোপারা, হযরতউল্লাহ জাজাইদের। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে শিরোপার চ্যালেঞ্জ জানাবে মাহমুদ উল্লাহ, ইমরুল কায়েস, নাসির হোসেন, রুবেল হোসেন, গেইল, কেসরিক উইলিয়ামসরা। রংপুর রেঞ্জার্সে খেলবেন মুস্তাফিজুর রহমান, নাঈম শেখ, আরাফাত সানি, তাসকিন আহমেদ, মোহাম্মদ নবী, শাই হোপরা। কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সে সৌম্য সরকার, আল-আমিন হোসেন, ইয়াসির আলী, সাব্বির রহমান, কুশল পেরেরা, মুজিব-উর-রেহমানরা। আর সিলেট থান্ডার্সে খেলবেন মোসাদ্দেক হোসেন, মোহাম্মদ মিঠুন, নাজমুল ইসলাম, সোহাগ গাজী, শফিকুল্লাহ শাফাকরা।

দল না পাওয়া উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে রয়েছেন এবাদত হোসেন, মোহাম্মদ আশরাফুল, জিয়াউর রহমানরা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা