kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

ধারাভাষ্যে ‘না’ মাশরাফির

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ধারাভাষ্যে ‘না’ মাশরাফির

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ক্যারিয়ারের সব শেষ টেস্ট খেলেছেন ১০ বছর আগে। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিকেও বিদায় জানিয়েছেন আড়াই বছর হলো। যে ফরম্যাটে খেলেন, সেই ওয়ানডেও আগামী মে-জুনের আগে খেলা হচ্ছে না বাংলাদেশের। তাই মাশরাফি বিন মর্তুজার এই ফাঁকা সময়ই কাজে লাগাতে চেয়েছিল স্টার স্পোর্টস। আগামী ২২ নভেম্বর থেকে কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে শুরু হতে যাওয়া ভারত-বাংলাদেশের ঐতিহাসিক গোলাপি বলের টেস্টে তাদের হয়ে বাংলায় ধারাভাষ্য দেওয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ওয়ানডে অধিনায়ককে। কিন্তু ধারাভাষ্য দেওয়ার প্রস্তাবে সাড়া দেননি মাশরাফি। তবে খেলা দেখতে কলকাতায় যাচ্ছেন তিনি।

এখন খেলা না থাকলেও নিজ জেলা নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য হিসেবেও কম ব্যস্ত নন মাশরাফি। সেই ব্যস্ততার কারণেই নতুন ক্যারিয়ার শুরুর প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন কি না, তা না বললেও স্টার স্পোর্টসের আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যানের কথা জানিয়েছেন তিনি, ‘আমাকে গোলাপি বলের টেস্টে ধারাভাষ্য দিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু আমি আগ্রহী হইনি। ওদেরকে না বলে দিয়েছি।’ ধারাভাষ্য না দিলেও ঐতিহাসিক ক্ষণ মিস করছেন না মাশরাফি। ইডেনের গ্যালারিতে দেখা যাবে তাঁকে। মমিনুল হকের নেতৃত্বে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ দেখতে যাওয়ার ব্যাপারটিও নিশ্চিত করেছেন তিনি, ‘এই ম্যাচটি দেখার ইচ্ছা আছে। আশা করি, খেলার সময় আমি কলকাতাতেই থাকব।’ যত দূর জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গী হিসেবেই কলকাতা টেস্টে যাচ্ছেন তিনি। এই টেস্টকে ঘিরে অবশ্য বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটারদেরও মিলনমেলা বসবে ইডেনে। কারণ ২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টের দলে থাকা প্রত্যেক ক্রিকেটারকেই আমন্ত্রণ জানিয়েছে বিসিসিআই। তাতে সাড়া দিয়ে বেশির ভাগ সদস্যই যাচ্ছেন সেখানে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা